• ঢাকা
  • শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ৪ আশ্বিন, ১৪২৭

বছরের দশমাসই পানির সাথে বসবাস কুষ্টিয়া কুমারখালী পৌরবাসীর

বছরের দশমাসই পানির সাথে বসবাস কুষ্টিয়া কুমারখালী পৌরবাসীর

  মোঃ সামরুজ্জামান (সামুন), কুষ্টিয়া : কুষ্টিয়ার কুমারখালী পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের শতাধিক পরিবার বছরের প্রায়  দশ মাসই পানির সাথে যুদ্ধ করে বসবাস করে। একটু বৃষ্টি হলেই জমে পানি নিমজ্জিত হয়। প্রশাসনের নজরদারি না থাকা, কর্তৃপক্ষের উদাসীনতা ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার মুখ থুবড়ে পড়ায় প্রায় পাঁচ থেকে ছয় বছর যাবৎ তাদের এই জলাবদ্ধতাজনিত দুর্ভোগ ক্রমেই চরমে। কেউ আবার এদুর্ভোগ বয়ে বেড়াচ্ছে দশ থেকে চৌদ্দ বছর। শুধু ১নং ওয়ার্ডই নয়, পানির সাথে বসবাস করেন কুমারখালী বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের প্রায় ৬০ টি পরিবার ও ৬ নং ওয়ার্ডের ২৫ থেকে ৩০ টি পরিবার। শুধু বসতবাড়িই নয়, কুমারখালী আদর্শমহিলা কলেজসহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোও জলাবদ্ধতার শিকার। তাদের অবস্থাও নাজেহাল। অপরদিকে পৌরসভার দক্ষিণে গড়াই ও উত্তরে পদ্মা নদী থাকা শর্ত্বেও একটি প্রথম শ্রেণির পৌরসভায় এমন স্থায়ী জলাবদ্ধতা থাকায় দুঃখ প্রকাশ করেছে স্থানীয় সচেতনমহল। শুক্রবার সকালে উপজেলা পরিষদ গেটের সম্মুখ পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডে সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, চারিদিকে থৈথৈ পানি। যতদুর চোখ যায় শুধু পানি আর পানি। চলাচলের একমাত্র রাস্তাটা হাটু পানির নিচে। বাসাবাড়িতেও হাটু পানি। রান্নাঘর, গোয়ালঘর, টিউবওয়েল, বার্থরুম গুলো পানিতে প্লাবিত। ছেলেরা পরনের কাপড় উচু করে চলাচল করলেও মেয়েদের অবস্থা খুবই করুন। শিশু থেকে শুরু করে শিক্ষার্থীরা আছেন গৃহবন্দী। দৈনন্দিনের নিত্য প্রয়োজনসহ ভেঙে পড়েছে চিকিৎসা ব্যবস্থা। এবিষয়ে ১নং ওয়ার্ডের স্থায়ী বাসিন্দা মানিক বলেন, প্রায় দশ বছর ধরে পানির সাথে আমাদের বসবাস। একটু বৃষ্টি হলেই চলাচলের একমাত্র রাস্তাটি ডুবে যায় হাটু পানির নিচে।বসতবাড়িতে বছরের প্রায় ছয় থেকে দশমাস জমে থাকে পানি। ছেলে মেয়েরা স্কুলে যেতে পারেনা। নিত্যদিনের প্রয়োজন মেটাতে কোন গাড়ি আসতে পারেনা। একজন অসুস্থ হলেও এ্যাম্বুলেন্সসহ কোন যানবাহনই আসেনা। ঘরের মধ্যেও জমে পানি। অবসর প্রাপ্ত চাকুরীজীবী আব্দুর রহিম বলেন, আমি একজন ডায়াবেটিসের রোগী। জলাবদ্ধতার কারনে হাটাচলা করতে পারিনা। বছরের অধিকাংশ সময়ই জমে থাকে পানি। প্রতিবছরই ঘরবাড়ি মেরামত করি, উচু করি, কিন্তু কোনভাবেই পানি ঠেকানো যাচ্ছেনা। চরমে দুর্ভোগে আছি। স্থায়ী বাসিন্দা আজাহার আলী বলেন, বিশ বছর ধরে বসবাস করছি এখানে। গত পাঁচ বছরে জলাবদ্ধতাজনিত সমস্যা বেড়েই চলেছে।রান্নাঘর, গোয়ালঘর,বার্থরুমে পানি। বারবার কর্তৃপক্ষকে জানানো হলেও কোন সুফল পাচ্ছিনা। বর্তমানে নানামুখী সমস্যার মধ্যে আছি। এবিষয়ে ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনিসুর রহমান মুঠোফোনে বলেন, একসময় পৌরসভার পানি পাশের ইউনিয়নের মধ্যদিয়ে নদীতে চলে যেত। কিন্তু পানি পথে বাঁধা সৃষ্টি করে ঘরবাড়ি নির্মাণ করায় এমন জলাবদ্ধতা। তিনি আরো বলেন, বর্তমানে মোটা পাইপ সেট করে পানি বের করার চেষ্টা চলছে। তবে সব পানি হয়তো অপসাধারন করা সম্ভব হবেনা। ৫ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এস এম রফিক বলেন, বর্তমানে আমার ওয়ার্ডে প্রায় ৬০টি পরিবার পানির সাথে বসবাস করছে। ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় বৃষ্টির পানি জমে এমন জলাবদ্ধতা। ৬নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জুলফিকার আলী হিরো বলেন, পৌরসভার ১,২,৩,৪ ও ৫ নং ওয়ার্ডের পানি আমার ৬নং ওয়ার্ডের মধ্যে দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় ২৫-৩০টি পরিবার পানিতে প্লাবিত হয় প্রতিবছরই। তিনি আরো বলেন, উল্লেখযোগ্য ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় এমন সমস্যা। কুমারখালী পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সামছুজ্জামান অরুন সাংবাদিকদের এক সাক্ষাতকারে বলেন, পর্যাপ্ত বরাদ্দ ও ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় এমন জলাবদ্ধতা। তবে পানি অপসারনে কাজ চলছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দক্ষত.....

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, অনেকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সমালোচনা করে, কিন্তু স্বা.....

করোনার ভ্যাকসিন যেখান থেকে কম .....

ডেস্ক রিপোর্ট : দেশে প্রাণঘাতী করোনার ভ্যাকসিন আনার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, যেখান থেকে কম পয়স.....

ইউএনও ওয়াহিদা খানমের উপর হামল.....

স্টাফ রিপোর্টার : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ঘোড়াঘাটের ইউএনও ওয়াহিদা খানমের ওপর হামলায় জড়িত কাউকেই ছা.....

দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে পদ্ম.....

রিফাত জাহান: বাংলাদেশের মত উন্নয়নশীল দেশের জন্য পদ্মা সেতু হতে যাচ্ছে এর ইতিহাসের একটি সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জি.....

কারিগরিতে ভর্তি ৫০ শতাংশ বাড়া.....

 

  নিজস্ব প্রতিবেদক: কারিগরি শিক্ষায় ভর্তি ৫৯ শতাংশ বাড়া হবে উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ব.....

উন্নয়ন প্রকল্পে অনিয়ম বা দুর্.....

নিজস্ব প্রতিবেদক: উন্নয়ন প্রকল্পের কেনাকাটায় অনিয়ম বা দুর্নীতি করতে চাইলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে এবং প্রয়ো.....

শামীম মুশফিক প্রধানমন্ত্রীর .....

    লাখোকণ্ঠ প্রতিবেদক : শামীম মুশফিক প্রধানমন্ত্রীর প্রটোকল অফিসার-১ পদে, এস এম খুরশীদ উল আলম যুক্তর.....

‘খয়রাতি’ শব্দের ব্যবহার ছোট ম.....

  নিজস্ব প্রতিবেদক: সম্প্রতি বাংলাদেশের পণ্যে চীন সরকারের দেয়া শুল্কমুক্ত সুবিধাকে ভারতীয় বিভিন্ন .....

সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহা.....

লাখোকণ্ঠ ডেস্ক : আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন এমপি অসুস্থ হয়ে র.....

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ ম.....

নিজস্ব প্রতিবেদক: দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. মোহসীনকে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্.....

চলতি মাসেই চালু হচ্ছে আন্তর্জ.....

লাখোকণ্ঠ অনলাইন : করোনা সংকটে বন্ধ থাকা আন্তর্জাতিক রুটের আকাশপথ খুলছে চলতি মাসেই। চলতি মাসের তৃতীয় সপ্তায় .....

ডিএনসিসির চিরুনি অভিযানের তৃ.....

এডিস মশা নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে নগরবাসীকে ডেঙ্গু থেকে সুরক্ষা দিতে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) সক.....