• ঢাকা
  • রবিবার, ০৫ Jul ২০২০ | ২১ আষাঢ়, ১৪২৭

রাজারহাটে ভাঙন আতংকে তিস্তাপাড়ের মানুষ

রাজারহাটে ভাঙন আতংকে তিস্তাপাড়ের মানুষ

মো: রফিকুল ইসলাম কুড়িগ্রাম  ॥ কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া রাক্ষুসি তিস্তা নদীর ভাঙন আতংকে দিশাহারা হয়ে পড়েছে ৩টি ইউনিয়নের মানুষজন। এক সপ্তাহের ব্যবধানে তিস্তা নদীর গর্ভে বিলীন হয়েছে প্রায় শতাধিক পরিবারের বসতবাড়িসহ শতাধিক হেক্টর ফসলী জমি। ফলে তিস্তা নদীর পাড়ে আরও সহ¯্রাধিক মানুষ ঘরবাড়ি বিলীনের আতংকে দিনাতিপাত করছে।উপজেলার বিদ্যানন্দ ইউনিয়নের মন্দির ও পাড়ামৌলা গ্রামের বন্যানিয়ন্ত্রণ বাঁধ,ঘড়িয়ালডাঙ্গা খিতাবখাঁ বুড়িরহাট বাঁধ হুমকির মুখে রয়েছে। এছাড়াও নাজিমখানইউনিয়নের রতিদেব গ্রামের ফসলী জমি ও অর্ধশতাধিক পরিবারের ঘর-বাড়ি তিস্তা নদী গর্ভে বিলীনের পথে। এসব এলাকায় স্পার বাঁধে গ্রোয়েন বাঁধ দেয়া না হলেকিছুতেই ভাঙন ঠেকানো যাবে না বলে স্থানীয় ধারণা করছেন।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধি লাভলু মিয়া ও খোরশেদ আলম জানান, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকুড়িগ্রাম পাউবো বিভাগ নদী ভাঙন রোধের দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে ক্ষতিগ্রস্তহয়ে পড়বে পাউবোর তিস্তা রক্ষা বেরীবাঁধ ও ক্রস বাঁধ। তাই তিস্তা পাড়ের মানুষজন বালুর বস্তা দিয়ে ভাঙন ঠেকানোর চেষ্টা করছে।

ভাঙন আতংকে থাকা গৃহবধু রাবেয়া ও আম্বিয়া বেগম জানান, আমাগো জায়গাতিস্তা নদী গ্রাস করছে। এবারে ৩ বিঘা জমির আমন ধান করেছি তাও খায়া গ্যাছে।তিস্তার ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক আনছার আলী (৫৪), দুলাল (৪৬), আষাঢু (৪৫), চিনুনাথ (৪৯) বলেন, এই এলাকায় প্রায় ৩ শতাধিক মানুষ আতংকে রয়েছে। এই নদী শাসনের ব্যবস্থা না  করা হলে শুধু আমরা না তিস্তা রক্ষা বেড়িবাঁধ ভেঙে উপজেলার বিভিন্ন এলাকা পানিতে ডুবে যাবে।

এ প্রসঙ্গে বিদ্যানন্দ ইউপি চেয়ারম্যান মো. তাইজুল ইসলাম বলেন, আমি বিষয়টিপাউবোর কর্মকর্তাদের জানিয়েছি। নদী ভাঙন রোধের দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া না হলে আরো বেশী ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়বে তিস্তা পাড়ের মানুষ ও তিস্তা রক্ষা বাঁধ।কুড়িগ্রাম পাউবো নির্বাহী প্রকৌশলী শফিকুল ইসলাম বলেন, বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধেভাঙন ঠেকাতে জিও বস্তায় বালু ভর্তি করে ভাঙন রোধের চেষ্টা করা হচ্ছে।এ ব্যাপারে রাজারহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহ. রাশেদুল হক প্রধান বলেন, পানি উন্নয়ন বোর্ডের লোকজনের সাথে সমন্বয় করে ভাঙন রোধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

‘খয়রাতি’ শব্দের ব্যবহার ছোট ম.....

  নিজস্ব প্রতিবেদক: সম্প্রতি বাংলাদেশের পণ্যে চীন সরকারের দেয়া শুল্কমুক্ত সুবিধাকে ভারতীয় বিভিন্ন .....

সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহা.....

লাখোকণ্ঠ ডেস্ক : আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন এমপি অসুস্থ হয়ে র.....

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ ম.....

নিজস্ব প্রতিবেদক: দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. মোহসীনকে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্.....

চলতি মাসেই চালু হচ্ছে আন্তর্জ.....

লাখোকণ্ঠ অনলাইন : করোনা সংকটে বন্ধ থাকা আন্তর্জাতিক রুটের আকাশপথ খুলছে চলতি মাসেই। চলতি মাসের তৃতীয় সপ্তায় .....

ডিএনসিসির চিরুনি অভিযানের তৃ.....

এডিস মশা নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে নগরবাসীকে ডেঙ্গু থেকে সুরক্ষা দিতে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) সক.....

আহমদ শফীর শারীরিক অবস্থা স্থি.....

চট্টগ্রাম ব্যুরো : বার্ধক্যজনিত দূর্বলতা ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্ত.....

মোঃ নাসিমের রোগমুক্তি কামনায় .....

সরিষাবাড়ি, জামালপুর সংবাদদাতাঃ জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও ১৪ দলের মুখপাত্.....

গণপরিবহ‌নে অ‌তি‌রিক্ত যাত্রী.....

নিজস্ব প্রতিনিধি : গণপরিবহ‌নে অ‌তি‌রিক্ত ভাড়া আদায় এবং অ‌র্ধেক আসনের বেশি যাত্রী উঠা‌নো সং‌শ্লিষ্ট.....

প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব-.....

লাখোকণ্ঠ ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব-১ আশরাফুল আলম খোকনের পিতা মো. আনোয়ার হোসেনের মৃত্যুতে গভীর শোক .....

ভার্চুয়াল শপথের পরে রাতে ফের শ.....

লাখোকণ্ঠ ডেস্ক : বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে স্থায়ী নিয়োগ পাওয়া ১৮ বিচারপতিকে দ্বিতীয় দফায় শপ.....

নাটোর উত্তরা গণভবনের ঐতিহাসি.....

    আমিরুল ইসলাম, নাটোর :  ঐতিহ্যবাহী নাটোরের উত্তরা গণভবনের ঘড়ির একটি আংশ ভেঙ্গে গেছে। ঘুর্ণিঝড় আমপানের.....

বসলো পদ্মা সেতুতে ৩০তম স্প্যা.....

শ্রীকান্ত দাস,মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি : সকল প্রতিকূলতা জয় করে স্বপ্নের পদ্মাসেতুর নির্মানকাজ প্রতিনিয়ত অগ্রস.....