• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০ | ১২ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭
সব হারিয়ে নিঃস্ব প্রায় সহস্রাধিক পরিবার

রাজবাড়ীতে ভাঙন আতঙ্কে পদ্মা পাড়ের মানুষ দিশেহারা

রাজবাড়ীতে ভাঙন আতঙ্কে পদ্মা পাড়ের মানুষ দিশেহারা

রাজবাড়ী প্রতিনিধি: রাজবাড়ীর সদরের মিজানপুর, বরাট, গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ও দেবগ্রাম ইউনিয়ন এলাকায় নদীভাঙনে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের আহাজারিতে আবার ভারি হয়ে উঠেছে পদ্মাপাড়। ভাঙনের তীব্রতা কয়েকদিন কম থাকলেও গত দুই-তিন দিন ধরে তা আবার আগ্রাসী হয়ে গ্রাস করেছে শত-শত বিঘা ফসলী জমি, বাড়ি-ঘর ও মসজিদ-মাজার।

রাজবাড়ী শহর রক্ষা বাঁ‌ধের ফেইজ ১ এর কা‌জের গত ২৬ আগষ্ট থে‌কে ২১ সে‌প্টেম্বর পর্যন্ত পদ্মা নদীর তীর প্রতিরক্ষা বাঁ‌ধে পৃথক পৃথক স্থানে প্রায় ৬০০ মিটারএলাকার সি‌সিব্লক নদী‌তে ধ‌সে গে‌ছে। ত‌বে ভাঙ্গন রো‌ধে জরুরী ভি‌ত্তি‌তে বালুভর্তি জিও ব্যাগ ফেলার কাজ কর‌ছেন পা‌নি উন্নয়ন বোর্ড।

শনিবার রাজবাড়ী সদর উপ‌জেলার মিজানপুর ইউ‌নিয়‌নের গোদার বাজার, চরধুনচী ও সোনাকাদর পদ্মা নদীর তীর প্রতিরক্ষা বাঁ‌ধের ভাঙ্গন এলাকা প‌রিদর্শন ক‌রে‌ছেন শিক্ষা প্র‌তিমন্ত্রী ও রাজবাড়ী ১ আস‌নের এম‌পি কাজী কেরামত আলী।শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান, পদ্মায় অব্যাহত ¯্রােত এবং অপরিকল্পিতভাবে নদী খনন করার কারণে পদ্মায় এই ভয়াবহ ভাঙ্গন সৃষ্টি হয়েছে। তিনি বলেনরাজবাড়ী শহররক্ষার জন্য যা যা করনীয় সেগুলো করা হবে। কি কারণে তীর সংরক্ষণ এলাকার সিসি দ্বারা নির্মিত অংশের এমন ভাঙন তা জানার জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের পরিদর্শনের জন্য আমন্ত্রণ জানানো হবে।

জানা গেছে, গত ৩ দিনে রাজবাড়ী শহররক্ষা বাঁধের তীর সংরক্ষণ এলাকার সিসিব্লক দ্বারা নির্মিত ১৭০ মিটার অংশ পদ্মার ভাঙনে বিলীন হয়েছে। পদ্মা নদীরভাঙণ আতঙ্কে চর ধুঞ্চি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং মুন্সি বিলায়েতহোসেন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় দুটি হুমকির মধ্যে রয়েছে। যেকোন সময়বিদ্যালয় দুটি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যেতে পারে। এতে করে হুমকির মধ্যে রয়েছেরাজবাড়ী শহররক্ষা বাঁধ। পদ্মার এমন ভাঙনে হতবাক স্থানীয় বাসিন্দারা।ভুক্তভোগীরা জানান, গায়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া, দেবগ্রাম ও ছোটভাকলাইউনিয়নের পদ্মার তীরবর্তী এলাকায় ব্যাপক ভাঙন দেখা দিয়েছে। এ মাসের শুরুরদিকে ভয়াবহ ভাঙনের মুখে পড়ে পদ্মা পাড়। গত সপ্তাহ খানেক ভাঙনের তীব্রতাকিছুটা কম হলেও গত তিনদিন ধওে দৌলতদিয়ার ঢল্লাপাড়া, হাতেম মন্ডল পাড়া ওবেপারী পাড়া এলাকায় অতিমাত্রায় ভাঙনে পদ্মা পাড়ের মানুষের মাঝে হাহাকার দেখা দিয়েছে। দেবগ্রাম ও ছোটভাকলা ইউনিয়নেরও বিস্তৃর্ণ এলাকা ইতিমধ্যেবিলীন হয়েছে। ৩টি ইউনিয়নের সহস্ধসঢ়;্রাধিক পরিবার ভাঙনের শিকার হয়েমানবেতর দিন কাটাচ্ছে। এদের কেউ কেউ আত্মীয়-স্বজনের বাড়ীতে আশ্রয় নিলেও অনেক পরিবারেরই সে উপায় নেই। তারা মহাসড়ক, কাচা রাস্তা, বেরীবাধসহ বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে আশ্রয় নিচ্ছেন। এদের ছাড়াও ভাঙন আতঙ্ক নিয়ে নদীতীরে বসবাস করছে অন্তত ২ হাজার পরিবার।

সরেজমিন দৌলতদিয়ার ঢল্লাপাড়া গ্রামে দেখা যায়, সেখানকার ঢল্লা পাড়াজামে মসজিদ, রমজান মুন্সির মাজারসহ বহু বাড়ী-ঘর নদীতে বিলীন হয়ে গেছে।দুদিন আগেও যেখানে বাড়ি ঘর ও মসজিদ, আজ সেখানে পদ্মার তীব্র ¯্রােতেরগর্জন। অনেককে তাঁদের বাড়িঘর ভাঙতে ও গাছ-পালা কাটতে দেখা যায়। নদীরকাছে অধিকাংশ বসতভিটা শূন্য পড়ে থাকতে দেখা যায়।এসময় স্থানীয় লিয়াকত মীর মালত (৬৫) হতাশা নিয়ে জানান, তার প্রায় ১০ বিঘাজমি ছিল, ২টি স্যালোমেশিন, নিজেস্ব ট্রাক্টও সবই ছিল তার। ছিল টিনের বড়ঘর। তা সবই নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। এখন আমি নিঃস্ব হয়ে গেছি। আত্মীয়-স্বজনরা এসে কোন মতে ঘরগুলো রক্ষা করে দৌলতদিয়া হাইস্কুলের মাঠে নেয়ারব্যবস্থা করছে। সেখানেই আপাতত মাথা গোজার ব্যবস্থা হবে।এছাড়া স্থানীয় সুফিয়া খাতুন (৬০), হালিমা (৫৫), মুন্নাফ বেপারী (৪৫), আ.মজিদ (৫০)সহ অনেকেই জানান, তাদের সাজানো সংসার চোখের সামনেতছনছ হয়ে যাচ্ছে। কোন মতে ঘরগুলো রক্ষা করা গেলেও গাছ-পালা, ফসলী জমি সব বিলিন হয়ে গেছে। নিজস্ব আর কোন জায়গা নেই। কোথায় গিয়ে আশ্রয়নিবো তাও জানি না। দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম মন্ডল জানান, গত প্রায় ১ মাসের ভাঙনে তার ইউনিয়নের প্রায় ৪ শতাধিক পরিবার নিঃস্ব হয়ে গেছে।

এভাবে ভাঙতে থাকলে অচিরেই আফছার শেখের পাড়া, হাতেম মন্ডল পাড়া, ১ নংবেপারী পাড়া, ঢল্লাপাড়ার অবশিষ্ট অংশ অচিরেই বিলিন হয়ে যাবে। দ্রুত ভাঙনপ্রতিরোধের ব্যবস্থা নেয়ার দাবী জানাচ্ছি।

রাজবাড়ী পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী এসএম নুরুন্নবীজানান, গোয়ালন্দের ভাঙন প্রতিরোধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে উর্দ্ধতন কতৃপক্ষেরকাছে ৩০ কোটি টাকা বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে। বরাদ্দ পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শফিকুল ইসলাম শেখ বলেন,পরিকল্পনা অনুয়ায়ী ড্রেজিং না করার কারণে সিসি ব্লক দ্বারা নির্মিত অংশভেঙ্গে যাচ্ছে। এমন ভাঙন অব্যাহত থাকলে আগামী ২০ দিনের মধ্যে সিসি ব্লকদ্বারা নির্মিত প্রায় ৩ কিলোমিটার অংশই নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যাবারআশংকা প্রকাশ করে বলেন এতে শহররক্ষা বাঁধ ঝুকির মধ্যে রয়েছে।

করোনার মারা গেলেন ধানমন্ডী-মো.....

 

লাখোকণ্ঠ প্রতিবেদক : করোনার মারা গেলেন ধানমন্ডী-মোহাম্মপুরের সাবেক এমপি হাজী মকবুল হোসেন। ঢাকার সম্.....

ডিএনসিসির পক্ষ থেকে ৮৬ হাজার দ.....

লাখোকণ্ঠ অনলাইন : ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) নিজস্ব তহবিল থেকে ডিএনসিসির ৮৬ হাজার দুঃস্থ ও অসহায় .....

ফটোসাংবাদিক মিজানুর রহমান খা.....

স্টাফ রিপোর্টার : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি বাংলাদেশ ফটো জার্ণালিস্ট এসোসিয়েশনের সিন.....

সিগারেটসহ সব ধরণের তামাক পণ্য.....

লাখোকণ্ঠ অনলাইন : দেশে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সব তামাক কোম্পানির উৎপাদন, সরবরাহ, বিপণন ও তামাকপাতা ক্রয়-.....

ঘূর্ণিঝড় আমফান : ১১’শ সাইক্লোন.....

লাখোকণ্ঠ অনলাইন প্রতিবেদক : ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। ইতিম.....

'জীবনাচরণে স্থানীয় চিন্তায় বৈ.....

আরিফ হোসেন হারিছ, সিরাজদিখান(মুন্সীগঞ্জ) : কোভিড ১৯ সংক্রমনের কারণে বিশ্বজুড়ে লকডাউন চলাকালীন বৈশ্বিক শিক্ষ.....

শিমুলিয়ায় বিপাকে হাজারো মানু.....

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি : ঈদুল ফিতরকে কেন্দ্র করে করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই রাজধানীতে থাকা দক্ষিণবঙ্গের মানুষগ.....

৩৩৩’ এর প্রচারণায় ব্রাহ্মণবা.....

বাহাদুর আলম,ব্রাহ্মণবাড়িয়া : করোনাভাইরাসের দুর্যোগময় পরিস্থিতিতে মাঠ পর্যায়ে কল সেন্টার ‘৩৩৩’ এর প্রচা.....

ডিজিটাল পদ্ধতিতে ১৮ মে আন্তর্.....

স্টাফ রিপোর্টার : করোনা ভাইরাসজনিত রোগ (কোভিড-১৯) এর বৈশ্বিক মহামারির প্রেক্ষিতে বাংলাদেশে এর বিস্তার রোধে ব.....

১৯ দিনে ২০০ বেডের করোনা হাসপাত.....

লাখোকণ্ঠ প্রতিবেদক  : করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা দেয়ার জন্য মাত্র ১৯ দিনে আনোয়ার খান মডার্ণ মেডিকেল কলেজ ২০.....

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের দ.....

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করলেন ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস.....

৫০ লাখ পরিবারের মধ্যে আড়াই হাজ.....

স্টাফ রিপোর্টার : সারা দেশে করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্ত ৫০ লাখ হতদরিদ্র পরিবারের মধ্যে আড়াই হাজার টাকা করে নগদ.....