• ঢাকা
  • শনিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ | ১১ ফাল্গুন, ১৪২৫

রংপুরে ব্যবসায়ীর পৈতিক জমি জোরপূর্বক দখলের অভিযোগ

রংপুর ব্যুরো :রংপুর জেলার মিঠাপুকুরের ময়েনপুর ইউনিয়নের গেনারপাড়া মৌজার মৃত আবুলকালাম আজাদ নামে এক মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের বিরুদ্ধে স্থানীয় এক অসহায়ব্যবসায়ীর পৈতিক জমি জোরপূর্বক দখলের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। প্রকৃতমুক্তিযোদ্ধা পরিবারের কেউ না হয়েও সাধারণ মানুষের অনুভূতি আদায়ের জন্য মৃতসোলায়মান শাহের সন্তানরাসহ ওয়ারিশগণ নিজেদেরকে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারেরসদস্য দাবি করে মিথ্যা মামলা ও হামলা করে হয়রানি করে যাচ্ছেন। গতকাল দুপুরেরংপুর রিপোর্টার্স ক্লাব মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ তুলেপ্রশাসনের মাধ্যমে ন্যায় বিচার পাওয়ার দাবি জানান ভূক্তভোগি বাদল মিয়া।সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য তিনি বলেন, পশ্চিম গেনারপাড়া মৌজায় মৃতসোলায়মান শাহের ওয়ারিশগন১০ সেপ্টেম্বর ঢাকা থেকে প্রকাশিত একটি দৈনিক পত্রিকাতে সাংবাদিককেভূয়া বানোয়াট তথ্য দিয়ে নিজেদেরকে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্য উল্লেখ করেনমৃত সোলায়মান শাহের ওয়ারিশরা। তারা আমার পিতার পৈত্রিক জমি জমা দখলেরচেষ্টার কথা আড়াল করে সঠিক উল্টো আমাদেরকে জড়িয়ে মিথ্যা সংবাদ প্রচারকরিয়েছেন। যা মূলত নিজেদের অপরাধ ঢাকতে একটি অপচেষ্টা ছাড়া আর কিছুনয়।তিনি আরো জানান, মৃত সোলায়মান শাহ পৈত্রিকভাবে পশ্চিম গেনারপাড়ামৌজায় ১৫৩ ও ১৬৪ খতিয়ানে তিন দাগে যে ৫৬ শতক জমির মালিকানাপেয়েছিলেন তার মধ্যে থেকে সোলায়মান শাহ জীবিত থাকাকালীন আপন ভাইআবুল হায়াৎ এর নিকট ১৯৬০ সালে ২১৩০২ দলিল মূলে ৮৬০ দাগে ২৩ শতক জমিবিক্রি করে। ১৯৬৪ সালে কিনু সর্দার ছেলে সোলয়মানের সর্দারের নিকট২৫/০৭/১৯৬৪ ইং তারিখে ১৯২৯৯ দলিল মূলে ৭৫২ দাগে ১৯ শতক জমি মোট ৪২ শতকজমি বিক্রি করে। এরপর তার অবশিষ্ট ১৪ শতক জমি ১৪৮০ দাগে সোলায়মান শাহেরনামে রেকর্ড হয়। সে জমি সোলায়মান শাহের মৃত্যুর পর তার ওয়ারিশগন ভোগ দখলকরে আসছে। ৫৬ শতক জমি বুঝিয়া পাওয়ার পরেও এখন সোলায়মানের ওয়ারিশগনতার বাবার বিক্রিত জমি নিজেদের দাবি করে আমাদের ভোগদখলকৃত জমি জবর দখরকরার চেষ্ঠা করে যাচ্ছেন। সোলায়মান শাহের পরিবারবর্গ এবং ওয়ারিশগণ যেভাবেজমি দখলের চেষ্টায় একের পর এক ঘটনা ঘটিয়ে যাচ্ছেন, তাতে করে আমরানিজেদেরজমিতে যেতে না পেরে শঙ্কিত। এজন্য পুলিশ প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট সকলের

মহান একুশে ফেব্রুয়ারি আজ .....

‘আমার ভায়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি/ আমি কি ভুলিতে পারি’— না, বাঙালি জাতি ভোলেনি পূর্বপুরুষের মহা.....

পিতার লাশের অপেক্ষায় দুই যমজ .....

এইচ এম কাওসার আহমেদ ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএর ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী। কাজ করতেন চুড়িহাট্টায় এক ফা.....

প্রতি বছর বাড়ছে আট লাখ বেকার: স.....

গত ১০ বছরে অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে অনেক উন্নয়ন হলেও কর্মসংস্থান প্রবৃদ্ধি মূল চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ফলে প্র.....

শুধু খামখেয়ালিতে ভাড়া করা বিম.....

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের কর্মকর্তাদের খামখেয়ালিপনায় ইজিপ্ট এয়ার থেকে লিজ নেয়া নষ্ট দুটি উড়োজাহাজের পে.....

পুলিশের হাতে নিরীহ মানুষ যেন হ.....

পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, পুলিশের হাতে যেন কোনো নিরীহ মানুষ হয়রানি শ.....

বাংলাদেশ নিয়ে মিথ্যা সংবাদ, মি.....

সীমান্ত পরিস্থিতি নিয়ে মিয়ানমারের বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রকাশ করায় বাংলাদেশে .....

বাংলাদেশ দুর্নীতিতে বিশ্বে ১.....

ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল (টিআই)-এর দুর্নীতির ধারণা সূচক অনুযায়ী বাংলাদেশে দুর্নীতি বেড়েছে। শীর্ষ .....

বিশ্বের শীর্ষ ১০০ চিন্তাবিদদ.....

রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বিশ্বের শীর্ষ ১০০ চিন্তাবিদের তালিকায় স্থান পেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ‘প.....

টিআইবির বক্তব্য প্রত্যাখ্যান.....

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল (টিআইবি) যে গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ত.....

প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষর জালে.....

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বাক্ষর হুবহু জাল করে কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে চক্রের মূলহোতা হেলাল উদ্দিনস.....

নতুন মন্ত্রি পরিষদে স্থান পেল.....

নতুন মন্ত্রিপরিষদ শপথ গ্রহণ করবে আগামীকাল। তাই এরই মধ্যে যারা মন্ত্রিসভায় স্থান পাচ্ছেন তাদের নাম ঘোষণা কর.....

আবার থ্রি-জি ও ফোর-জি বন্ধের নি.....

আজ থেকে ভোটের দিন পর্যন্ত মোবাইল ইন্টারনেটের থ্রিজি-ফোরজি সেবা বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ.....