• ঢাকা
  • বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮ | ৫ পৌষ, ১৪২৫

বাগেরহাটে দু‘ই আ,লীগ নেতা হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে বিক্ষোভ

বাগেরহাটে দু‘ই আ,লীগ নেতা হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে বিক্ষোভ

বাগেরহাট প্রতিনিধি:

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে দুই আওয়ামী লীগ নেতা হত্যাকান্ডে জড়িতদের ফাঁসির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে এলাকাবাসী।  ২ অক্টোবর, মঙ্গলবার মোরেলগঞ্জ উপজেলার দৈবজ্ঞহাটি বাজাওে মিছিল করে এলাকাবাসী। এসময় দৈবজ্ঞহাটি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ফকির শহিদুল ইসলামসহ তার দোষরদের ফাসিচেয়ে স্লোগান দেয় মিছিলকারীরা। হত্যাকান্ডের পর থেকে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

ঘটনাস্থল ইউনিয়ন পরিষদসহ আশপাশ এলাকায় পুলিম মোতায়েন করাহয়েছে। উৎসুক জনতা ভয়ে ভয়ে উকি দিচ্ছে ইউনিয়ন পরিষদের দিকে। এদিকে হত্যাকান্ডে জড়িত থাকার সন্দেহে ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ।আটককৃতরা হলেন, দৈবজ্ঞহাটি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ফকির শহিদুল ইসলাম,একই এলাকার ইয়াকুব আলীর ছেলে দফাদার আবুয়াল হোসেন ফকির, হাতেম আলীর ছেলে আবুল শেখ এবং করিম ডাকুয়ার ছেলে জুলহাস ডাকুয়া। আটককৃতদের ডিবি কার্যালয়ে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তবে ঘটনার ২০ ঘন্টা পার হলেও এখন পর্যন্ত মামলা হয়নি।

বাগেরহাটের পুলিম সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায় বলেন, হত্যাকান্ডের ঘটনায় আমরা এ ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৪জনকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছি। ইউপি চেয়ারম্যানেরলাইসেন্সকৃত একটি শটগান ও শর্ট গানের ৩টি কার্তুজ জব্দ করা হয়েছে। এছাড়া চেয়ারম্যানের হেফাজতেথাকা ১টি দেশী রিভলবার এবং রিভলবলের ২ রাউন্ড গুলি,১টি দেশী ওয়ান সুটারগান, ৩ রাউন্ড বন্দুকের কার্তুজ এবং ১টি হাত কুড়াল উদ্ধার করা হয়েছে। বর্তসানে এলাকার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।ফের সংঘাত এড়াতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিম মোতায়েণ করা হয়েছে। মোরেলগঞ্জ থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।উল্লেখ, সোমবার (০১ অক্টোবর) বিকেলে মোরেলগঞ্জ উপজেলার দৈবজ্ঞহাটি এলাকায় প্রতিপক্ষের হামলায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনছার আলী দিহিদার ও যুবলীগ নেতা মোঃ শুকুর আলী নিহত হয়। আহত হয় আরও দুৃই জন। নিহত আ.লীগ নেতার জানাযায় এমপি ডা. মোজাম্মেল নাজেহালমোরেলগঞ্জ উপজেলায় দলীয় কোন্দলে নিহত দুই নেতার নামাজে জানাযায় এসে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীসহ কয়েক হাজার মানুষের ক্ষোভের মুখে পড়ে জানাযা না পড়েই বাগেরহাটে ফিরে যান জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও স্থানীয় এমপি ডা. মোজাম্মেল হেসেন। জানাজা শুরুর পূর্ব মুর্হুতে এমপি ডা. মোজাম্মেল উপস্থিত হয়ে মাইকে কিছু বলতে চাইলে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীসহ কয়েক হাজার মানুষ তাকে চলে যেতে বলে। এসময়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগসহ পুলিশ উত্তেজিত জনতাকে শান্ত করার চেষ্টা করলে এমপি ডা. মোজাম্মেল হোসেনের দিকে তেড়ে আসতে থাকে হাজার হাজার জনতা। বিক্ষুব্দ জনশ্রোতের মধ্যে পুলিশ এমপি মোজাম্মেলকে কর্ডন করে নিরাপদে দৈবজ্ঞহাটী সেলিমাবাদ কলেজ মাঠের বাইরে নিয়ে আসেন। পরে এমপি ডা. মোজ্জাম্মেল হোসেন দুই নেতার জানাযা না পড়েই বাগেরহাট ফিরে যান। নিহত দুই নেতাকে সন্ধ্যায় জানাজা শেষে পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয়েছে।বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার দৈবজ্ঞহাটীতে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আনসার আলী দিহিদার ও উপজেলা যুবলীগের সদস্য শেখ শুকুর আলী সোমবার বিকালে দৈবজ্ঞহাটীতে দলীয় প্রতিপক্ষের হাতে নিহত হন। এঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ এমপি মোজ্জামেল গ্রুপের নেতা দৈবজ্ঞহাটী ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম ফকিরসহ ৪ জনতে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ৩টি আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেফতার করে। এই দুই নেতাকে হত্যার পর থেকে এলাকা উত্তাল হয়ে ওঠে।এদিকে বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার দৈবজ্ঞহাটীতে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আনসার আলী দিহিদার ও উপজেলা যুবলীগের সদস্য শেখ শুকুর আলীকে ধরে নিয়ে ‘বোরখা পরিয়ে’ হত্যার প্রতিবাদে মঙ্গলবার দুপুরে হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীসহ ক্ষুব্দ এলাকাবাসি দৈবজ্ঞহাটি বাজারে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ঘটনার পর থেকে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এদিকে, মঙ্গলবার দুপুরে নিহত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা আনছার আলী দিহিদারের খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং দলীয় কর্মী শুকুর শেখের ময়না তদন্ত বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে সম্পন্ন হয়েছে। নিহত যুবলীগ নেতা শুকুর শেখের শরীরে বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের কোপ ছাড়াও পাঁচটি গুলির চিহ্ন পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে ময়না তদন্তকারী মেডিকেল বোর্ড।দৈবজ্ঞহাটী সেলিমাবাদ কলেজ মাঠে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নিহত দুই নেতার নামাজে জানাজায় কয়েক হাজার মানুষ আংশ নেন। নামাজে জানাজার শুরুতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও বাগেরহাট- ৪ আসনের আওয়ামী লীগের মনোয়ন প্রত্যাশী এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ এই দুই নেতার হত্যাকান্ডে জড়িত সকল সন্ত্রাসীদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিচারের আশ^াস দেন। এদিকে, পুলিশ মঙ্গলবার বিকাল পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে ‘শহিদুল বাহিনী’র প্রধান দৈবজ্ঞহাটী ইউপি চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা শহিদুল ইসলাম ফকির, ওই বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ডার আবুয়াল হোসেন ফকির, আবুল শেখ ও জুলহাস ডাকুয়া নামে ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে। এ ঘটনায় জড়িত অন্য ঘাতকদের গ্রেফতারের পুলিশ ও র‌্যাবের একাধিক টিম অভিযান চালাচ্ছে বলে জেলা পুলিশ নিশ্চিত করেছে। দুপুরে বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।নিহত উপজেলা যুবলীগের সদস্য শেখ শুকুর আলীর লাশের ময়না তদন্ত বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে সম্পন্ন হয়েছে। বাগেরহাট সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ও মেডিকেল বোর্ডের প্রধান ডা. মশিউর রহমান  জানান, তিন সদস্যের মেডিকেল বোর্ড নিহত শুকুর শেখের ময়না তদন্ত করে। নিহতের পিঠে পাঁচটি গুলির চিহ্ন পাওয়া গেছে। যার মধ্যে তিনটি পিঠ থেকে ঢুকে সামনের পেট দিয়ে বের হয়েছে। এছাড়া তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে একাধিক ধারালো অস্ত্রের কোপের চিহ্ন রয়েছে। দৈবজ্ঞহাটী সেলিমাবাদ কলেজ মাঠে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নিহত দুই নেতার নামাজে জানাজা শেষে আনসার আলী দিহিদারকে দৈবজ্ঞহাটী ও শুকুর শেখের লাশ জোকা গ্রামের পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয়েছে।হামলায় আহত দৈবজ্ঞহাটি ইউনিয়ন তাঁতীলীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক বাবলু শেখ সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, দৈবজ্ঞহাটি ইউপি চেয়ারম্যান শহীদুলের সাথে স্থানীয়ভাবে আমাদের রাজনৈতিক বিরোধ রয়েছে। সেই বিরোধের জেরে সোমবার বিকেলে চেয়ারম্যান ফকির শহীদুল ইসলামের অস্ত্রধারী ক্যাডাররা বাজার থেকে আমাদের জোর করে ইউনিয়ন পরিষদে ধরে নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে আমাদের সবাইকে বোরকা পরায়। পরে আমাদের সবাইকে পরিষদ থেকে বাইরে নিয়ে এসে চেয়ারম্যান শহীদুল চিৎকার করে বলতে থাকে আমরা তাকে হত্যা করতে এসেছি। এসময় তার ক্যাডার বাহিনী ধারালো অস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে আমাদের উপর হামলা চালায়।বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায়  জানান, সোমবার বিকালে দৈবজ্ঞহাটি ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ফকিরকে হত্যার প্রচেষ্টার একটা মিথ্যা গুজব ছড়িয়ে দেয়। এরপর ইউপি চেয়ারম্যান ও তার লোকজন আওয়ামী লীগ নেতা আনছার আলী দিহিদার, যুবলীগ সদস্য শুকুর শেখ ও তাঁতী লীগ নেতা বাবুল শেখকে ইউনিয়ন পরিষদে ধরে এনে কুপিয়ে-পিটিয়ে ও গুলি করে গুরুতর আহত করে। আহতদের মধ্যে আনছার আলীকে খুলনা মেডিকেলে ও শুকুর শেখকে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। আওয়ামী লীগের এই দুই নেতা হত্যার ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুলসহ চারজনকে আটক করা হয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালের ২৫.....

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : লক্ষ্মীপুরে প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের দেড় বছর পর সদর হাসপাতালের.....

চাটখিলে সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্.....

চাটখিল (নোয়াখালী) প্রতিনিধি: চাটখিল পৌরসভার ভীমপুর গ্রামথেকে বুধবার রাতে মো.মাঈন উদ্দিন সেন্টু (৫৩) নামে এক স.....

ড. কামাল ও বি চৌধুরীরা বাংলাদে.....

কুষ্টিয়া প্রতিনিধিঃ জাসদ সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এমপি বলেছেন, জাতীয় ঐক্য’র নামে যে ঐক্য গঠিত হ.....

এক ক্লিকে নির্বাচনী পরীক্ষার .....

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি চট্টগ্রাম প্রথমবারের মতো অনলাইনে প্রকাশিত হলো চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন পরিচালিত ৪৭.....

নোয়াখালীতে ২ কোটি টাকার হেরোই.....

নোয়াখালী প্রতিনিধি : নোয়াখালীর সোনাপুর এলাকা থেকে প্রায় দুই কেজি হেরোইন সহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র&zwnj.....

বরিশালে পাগলা কুকুরের কামড়ে ১.....

বরিশাল প্রতিনিধিবরিশালের উজিরপুরের বিভিন্ন এলাকায় মা-মেয়ে ও পথচারীসহ ১৮ জনকে কামড়িয়েএকটি কুকুর। কুকুরে কা.....

রাজশাহীতে জুয়া খেলার জের ধরে হ.....

রাজশাহীতে জুয়া খেলার জেরে হামলা-পাল্টা হামলায় একজনগুলিবিদ্ধসহ মোট ছয়জন আহত হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবারসকাল.....

বর্তমান সরকারের আয়ুষ্কাল শেষ .....

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, বর্তমান সরকারের আয়ুষ্কাল শেষ হয়ে আসছ.....