• ঢাকা
  • রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ | ২২ মাঘ, ১৪২৯
প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে

"আই.এস.আই.ই ইন্ডিয়া এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড” পাচ্ছেন বাংলাদেশের সামমাম

"আই.এস.আই.ই ইন্ডিয়া এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড” পাচ্ছেন বাংলাদেশের সামমাম

ডেস্ক রিপোর্ট ।। এশিয়ার সর্ববৃহৎ ই-মোবাইলিটি মোটরস্পোর্টস, শিক্ষা ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান “আই.এস.আই.ই ইন্ডিয়া” জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে  সমাজকর্মে অবদান ও যুবসমাজ  নিয়ে কাজ করবার জন্য যাচাই বাছাই ও বিচারকার্যের মাধ্যমে ৩ টি ক্যাটাগরীতে অ্যাওয়ার্ড দিয়ে থাকে। বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন তরুণ সংস্থার সমন্বয়ে সমাজের কল্যাণে উন্নয়নমুলক কর্মকাণ্ড ও বিশ্বব্যাপী ২০৩০ সালের মধ্যে এস.ডি.জি লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের ফলশ্রুতিতে কাজ করার জন্য “ইমপেরিয়াল সোসাইটি  অব ইনোভেটিভ ইঞ্জিনিয়ার্স (আই.এস.আই.ই.ইন্ডিয়া”) এবারের “৪র্থ আই.এস.আই.ই ইন্ডিয়া এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড ২০২১” এ “ভিশনারী লীডারশীপ অ্যাওয়ার্ড” ক্যাটাগরীতে বিজয়ী হিসেবে সম্মানিত হবেন বাংলাদেশের এস এম সামমাম সাকতি ইবনে সাহাদাত। জুন মাসেই ভারতের অন্দ্রপ্রদেশে অবস্থিত  “সেন্ট  ইউরিওন  ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি এন্ড ম্যানেজমেন্ট” বিশ্ববিদ্যালয়ে “আই.এস.আই.ই ইন্ডিয়া এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড” গ্রহণ করবেন এস এম সামমাম সাকতি ইবনে সাহাদাত। লাখোকন্ঠে এসে নিজেই তার সেই অর্জনের গল্প শোনালেন লাখোকন্ঠ'র ডেস্ক রিপোর্টারকে।

ইন্ডিয়ান গভর্নমেন্টের " মিনিস্ট্রি অব নিউ এন্ড রিনিউএবল এনার্জি" ও " সোসাইটি অব ম্যানুফেকচারারস অব ইলেকট্রনিক ভেহিকলস" এর তত্ত্বাবধানে সমাজকর্মে অবদান রাখার জন্য ও সমাজের বিভিন্ন খাতে অসাধারণ নেতৃত্ব গুণাবলী প্রদর্শনের জন্য বিভিন্ন ক্যাটাগরীতে " আই.এস.আই.ই ইন্ডিয়া এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ডস" প্রদান করে থাকে। গত ফেব্রুয়ারি মাসের ১ তারিখ থেকে শুরু হওয়া জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অ্যাওয়ার্ডটির জন্য প্রতি বছর সহস্রাধিক আবেদনপত্র গ্রহণ করা হয়ে থাকে। যেখানে যাচাই বাছাই ও দীর্ঘ প্রক্রিয়াকরণের পর সমাজের উন্নয়ন ও নেতৃত্ব গুণাবলী দ্বারা সমাজে অবদান রাখবার জন্য বিভিন্ন অ্যাওয়ার্ড ক্যাটাগরীতে বিজয়ী নির্বাচনের পরিপ্রেক্ষিতে সংক্ষিপ্ত তালিকা নির্বাচন করা হয়। পরবর্তীতে "ইন্ডিয়ান গর্ভমেন্টস মিনিস্ট্রি অব নিউ এন্ড রিনিউএবল এনার্জি" এর ডিরেক্টর সহ ভারতের বিভিন্ন নামী প্রতিষ্ঠানের ডিরেক্টরস ও ডীনদের সমন্বয়ে গঠিত বিচারক বোর্ডের দ্বারা সংক্ষিপ্ত তালিকাধীন নমিনীদের ইন্টারভিউ এর মাধ্যমে বিজয়ী নির্বাচন করা হয়ে থাকে।

সামমাম বলেন, '২১ শে এপ্রিল আই.এস.আই.ই ইন্ডিয়ার অফিসিয়াল মেইল এর মাধ্যমে আমার অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিতকরণ করা হয়। পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে জুনে ভারতের অন্দ্রপ্রদেশে অ্যাওয়ার্ড প্রোগামটি অনুষ্ঠিত হবে । নতুবা করোনা পরিস্থিতির জন্য তারিখটি পেছাতে পারে।' আমরাও চাই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হোক। বদলে যাক করোনা পরিস্থিতি। সামমাম তরুণদের সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট লক্ষ্যমাত্রা পুরণে কাজ করার জন্য ও সমাজের সামাজিক অবকাঠামো উন্নয়নে অসাধারণ নেতৃত্ব প্রদর্শনের জন্য “ভিশনারী লীডারশীপ অ্যাওয়ার্ডস ” অর্জন করতে যাচ্ছেন।

সামমাম সাকতি বর্তমানে “আন্তর্জাতিক শিশু শান্তি পুরষ্কার” প্রদানকারী সংস্হা “ কিডস রাইট” এর সহায়তায় বিশ্বব্যাপী প্রায় ১৩ টি দেশে ২০৩০ সালের মধ্যে শতাধিক  শিক্ষিত জনমাত্রা অর্জনের লক্ষ্যে “এডুকেশনফর অল” প্রজেক্টের নেতৃত্ব প্রদান করছেন। লকডাউন কেটেছে বাংলাদেশে। এ সময় পড়াশোনার পাশাপাশি নিজেকে বিভিন্ন সৃজনশীল কাজে ব্যস্ত রেখেছেন তিনি। কাজ করছেন সাস্টেইনেবল ডেভেলপমেন্ট গোলস ফোর বা কোয়ালিটি এডুকেশন এবং ক্লাইমেট অ্যাকশন নিয়ে। তাছাড়া জাতিসংঘের অনলাইন মডেল ইউনাইটেড ন্যাশনসের ডেপুটি সেক্রেটারি জেনারেলের দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি বিশ্বের বৃহত্তম ছাত্র সংস্থা 'আইসেক'-এর এক্সচেঞ্জ পার্টিসিপেন্ট হিসেবেও কাজ করছেন।কাজ করেছেন আমেরিকাভিত্তিক নন প্রফিট অর্গানাইজেশন “ইউনাইট ২০৩০” এ ইয়ুথ ডেলিগেট হিসেবে। ২০২১ সালের জুনে কোয়ালিটি এডুকেশনে কাজের উদ্দেশ্যে মিসরের কায়রোতে দুই মাসব্যাপী এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করতে যাবার কথা থাকলেও করোনা পরিস্থিতির জন্য বিষয়টি ভেস্তে যায় । তাছাড়াও আসন্ন সেপ্টেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে 'ক্যাম্প ২০৩০'-তে অংশগ্রহণ করে বিশ্বের ২৫০ তরুণ নেতার নেতৃত্ব দেবারও প্রক্রিয়া আছে সামমামের।

শহরেই বেড়ে ওঠা সামমাম সাকতির। শৈশব ও কৈশোর কেটেছে ঢাকার মিরপুরে। তার বেড়ে ওঠার একমাত্র সঙ্গী ছোটো ভাই সায়েদ সাকতি। বাবা এস এম সাহাদাত হোসেনের হাত ধরে শুরু তার স্কুলজীবন মিরপুরের শহীদ পুলিশ স্মৃতি স্কুলে। ছোটবেলা থেকে গণিত ছিল তার প্রিয়। এটা হয়তো বাবার কারণেই হয়েছে। সামমাম সাকতির বাবা ছিলেন অধ্যাপক। গণিত পড়াতেন। বাবার পছন্দেই স্কুলে বিজ্ঞান বিভাগে পড়েন তিনি। কলেজও ছিল শহীদ পুলিশ স্মৃতি কলেজ। সামমাম এর সফলতার চাবিকাঠি তার মা রত্না পারভীন রুপা। মা স্বপ্ন দেখতেন, তার ছেলে শহরের বড় ডাক্তার হবে। মানুষের সেবা করবে। তাই ছেলেকে মানবিক গল্প শোনাতেন। সামমামও তার কৃতিত্বের চালিকা শক্তি মনে করেন তার মা -কে।

সামমাম বলেন, 'আমি পরীক্ষায় ভালো রেজাল্ট করতাম মূলত আমার মায়ের অনুপ্রেরণায়। মায়ের লক্ষ্য পূরণের জন্য আমি সব চেষ্টা করতাম। তবে ২০১৮ সাল সব ওলটপালট করে দিল। এইচএসসি পরীক্ষা শুরুর কিছুদিন আগে বাবা পাড়ি দেন আকাশের দেশে। ফলে এইচএসসি পরীক্ষার ফল আশানুরূপ হয়নি। এতে করে মেডিকেল পরীক্ষার প্রস্তুতি নেওয়াও হয়ে ওঠেনি। বুঝতে পারলাম, জীবনের সব স্বপ্ন হয়তো পূরণ হয় না। তাই বলে থেমে থাকাও যায় না।সেই মুহুর্তে মা শেখালেন নতুন করে স্বপ্ন দেখার। এখন স্বপ্ন দেখি নাসার অ্যারোস্পেস ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে নিজেকে গড়ে তোলার। সেই লক্ষ্যে বিদেশে পাড়ি জমিয়েছি।'

স্কুল থেকেই একটু ভারিক্কি বিষয়ে মনোযোগ সামমামের। নতুন কিছু পেলেই তা খুঁটিয়ে দেখার অভ্যাস। খুটুর-খাটুর; তারপর লেগে পড়তেন গবেষণায়। খেলাধুলার প্রতি ও তার ব্যাপক আগ্রহ! মাধ্যমিকে পড়ার সময় 'ভূমিকম্পের পূর্বাভাস দানকারী তত্ত্ব' নামের এক প্রজেক্ট উদ্ভাবন করেন। প্রজেক্টটি তার হাতে জাতীয় পুরস্কার এনে দেয়। এখনও সেই প্রজেক্ট নিয়ে গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন সামমাম। এই গবেষণায় সফল হলে হয়তো ভূমিকম্পের দুই সপ্তাহ আগেই পরপর দু'বার পাওয়া যাবে বিশেষ সংকেত। এই সংকেত পাওয়ার পর নেওয়া যাবে পর্যাপ্ত প্রস্তুতি। স্কুলে পড়ার সময় অভিনয়ও করেছেন তিনি। মিরপুর সাংস্কৃতিক পরিষদের নাট্যদলে কাজ করেছেন। 'আজব ডাক্তার' নাটকে মূকাভিনয় করে সেরা অভিনেতার পুরস্কারও পেয়েছিলেন তিনি। তবে ইউনিভার্সিটিতে সবাই তাকে সেরা বক্তা হিসেবেই চেনে। সামমামও বলেন, 'আমি আসলে বক্তৃতাতেই পারদর্শী।' তাছাড়াও দিনকয়েক পুর্বে তরুণদের সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট লক্ষ্য পূরণের বিশ্বমঞ্চ ইউনাইট ২০৩০ গ্লোবাল ইয়ুথ অ্যাকশন ফর বেটার ওয়ার্ল্ড ক্যাম্পেয়িনে  সর্বোচ্চ ৯৯টি অ্যাকশন ও ২৬৬০ পয়েন্ট অর্জন করে 'মোস্ট অ্যাসপিরিন ইয়ুথ অ্যাকটিভিস্ট'-এর টাইটেল আনলক করেছেন।

স্বপ্নের কথা জানতে চাইলে সামমাম বলেন, 'আমার স্বপ্ন জুড়েই দেশ। দেশে এখনও প্রায় ২৫ ভাগ মানুষ নিরক্ষর। তরুণদের নিয়ে দেশকে শতভাগ নিরক্ষরমুক্ত করতে চাই। বাবা সবসময় বলতেন, জীবনে এমন কিছু করবা যেন দেশের মানুষ তোমার ভালো কাজের জন্য সবসময় স্মরণ করে। আমিও চাই, বাবার সেই কথা ধরেই প্রিয় দেশের জন্য কাজ করতে। এ ছাড়া স্বপ্ন দেখি দেশে নাসার মতো মহাকাশ কেন্দ্র গড়ে তোলার। যে প্রতিষ্ঠানে গবেষণা করবে মেধাবীরা। চাঁদ ও মঙ্গলে লাল-সবুজের পতাকা উড়িয়ে বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দেবে আমাদের স্বপ্নবাজ ও মেধাবী তরুণরা।' সামমামদের হাত ধরে এমন স্বপ্ন বাংলার সব তরুনই দেখতে পারে।

সামমাম বিশ্বাস করেন তরুণরাই জাতির ভবিষ্যৎ। তরুণরাই বদলে দেবে আগামীর বিশ্ব। তার মতো যারা বিশ্বাস করেন তারুণ্য, যারা বিশ্বাস করেন তাদের নেতৃতব গুণাবলী দ্বারা বিশ্ব এগিয়ে যাবে উন্নতির শিখরে,তাদের জন্যই মুলত আই.এস.আই.ই এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ডস। যার আয়োজক ইম্পেরিয়াল সোসাইটি অব ইনোভেটিভ ইন্জিনিয়ারস ইন্ডিয়া(আই.এস.আই.ই ইন্ডিয়া)। প্রতিষ্ঠানটি প্রতিবছর ফেব্রুয়ারিতে অ্যাওয়ার্ডটির জন্য আবেদন গ্রহণ শুরু করে জুন পর্যন্ত নমিনেশন গ্রহণ করে। আবেদন করতে আগ্রহীরা https://imperialsociety.in/engineering_excellance_award/ লিংকটির মাধ্যমে  আবেদন করতে পারেন।

ঢাকায় মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাইফুদ্দিন নাসুসন ইসমাইল আজ শনিবার ঢাকায় এসে পৌঁছালে তাঁকে অভ্যর্থনা দেওয়া .....

বিএনপি শীতের পাখি, তাদের দেখা যায় শুধু ভোটের সময়: তথ্যমন্ত্রী

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ - ফাইল ছবি

কক্সবাজার প্রতিনিধি:বিএনপির রাজনীতির সমালোচনা করে .....

জানুয়ারিতে সড়ক, রেল ও নৌপথে দুর্ঘটনায় নিহত ৬৪২

জানুয়ারিতে সারাদেশে ৫৯৩টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৫৮৫ জন নিহত হয়েছে - প্রতীকী ছবি

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: সারাদেশে গ.....

জাতিসংঘ শান্তি বিনির্মাণ কমিশনের সহ-সভাপতি বাংলাদেশ

ছবি : সংগৃহিত

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন:  জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ .....

পাঠ্যপুস্তক নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ালে ব্যবস্থা নেওয়া হবে : তথ্যমন্ত্রী

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ আজ শুক্রবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান প্রাঙ্গণে বইয়ের মোড়ক উন্মোচন শেষে .....

সেপ্টেম্বরে ভারত সফরে যেতে পারেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। পিআইডির ফাইল ছবি লাকোকন্ঠ প্রতিবেদন: ভার.....

আব্দুস সাত্তারকে ধরে রাখতে না পারা বিএনপির ব্যর্থতা: তথ্যমন্ত্রী

সচিবালয়ে তথ্য অধিদপ্তরের সম্মেলন কক্ষে ‘উন্নয়নের নব দিগন্ত’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্.....

জলাভূমি রক্ষা ও পুনরুদ্ধারে সরকার দৃঢ় প্রতিজ্ঞ হয়ে কাজ করছে-পরিবেশমন্ত্রী

ফটো-লাখোকন্ঠ

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন বলেছেন, মাননীয় প্র.....

সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটে ‘বাংলা সংস্করণ’ উদ্বোধন

হাইকোর্টের ফাইল ছবি

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন:  সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটের ‘বাংলা সংস্করণ’উদ্বোধন করা .....

পাতাল রেলের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বৃহস্পতিবার পাতাল রেলের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করেন। ছবি: সংগৃহিত

লাখোকন্ঠ প.....

দুর্নীতি সূচকে দেশকে এক ধাপ নামানো উদ্দেশ্যপ্রণোদিত : তথ্যমন্ত্রী

ছবি -সংগৃহিত

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, .....

‘কেউ কেউ দু-চার বছরের জন্য অনির্বাচিত সরকার ক্ষমতায় আনতে চায়’

ছবি : ফোকাস বাংলা  

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘দেশের কেউ কেউ দু-চার বছরের জন্.....