• ঢাকা
  • শনিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ | ১১ ফাল্গুন, ১৪২৫

শাটল ট্রেন: যেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণ

শাটল ট্রেন: যেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণ

পৃথিবীতে মাত্র দুটি বিশ্ববিদ্যালয়ে শাটল ট্রেন সার্ভিস থাকলেও এখন শুধু চালু আছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে। চবিতে শাটল ট্রেন সার্ভিস চালু হয় ১৯৮০ সালে। চট্টগ্রাম শহর থেকে ২২ কিলোমিটার দূরে চবি ক্যাম্পাসে পৌছতে সময় লাগে প্রায় এক ঘন্টা।প্রতিদিন বিশ্ববিদ্যালয়ে সাত জোড়া ট্রেন চলাচল করে নগরী ও ক্যাম্পাসে।প্রায় ১০ থেকে ১২ হাজার শিক্ষার্থীদের যাতায়াত এই শাটল দিয়েই।যদিওবা শিক্ষার্থীদের তুলনায় শাটল ট্রেনের বগি সংখ্যা কম।অনেক কষ্টে গাদাগাদি করে যেতে হয়। তবু শাটলের উপর বিরক্ত হয়েছেন এমন লোক পাওয়া ভার। শাটল ট্রেনকে শুধুমাত্র ট্রেন বললে ভুল হবে।শাটল কে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণ বলা যায়।শাটল কে ঘিরে প্রতিটি শিক্ষার্থীর কত যে সুখ-দুঃখের গল্প জড়িয়ে আছে,তার কোন ইয়ত্তা নেই। তবে এটি যে সবার বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের একটি অংশ হয়ে গেছে,সে বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই। শাটল হলো বিনোদনের স্বর্গ আর ভালোবাসার রাজ্য। যেখানে প্রেম, গল্প, গান, পড়াশোনা একসঙ্গে চলে। প্রতিটি বগিতে আছে নিজস্ব বাদক ও গায়কদল। এই খ্যাত-অখ্যাত গায়ক ও বাদকদল প্রতিদিন আসা যাওয়ার সময় ট্রেনের দেয়াল চাপরিয়ে উচ্চস্বরে গান গেয়ে সারা বগি মাতিয়ে রাখে।বাংলা, হিন্দি, ইংরেজী ,প্যারোডিসহ সব ধরনের গান চলতে থাকে। কেউ কেউ ফোক, ভাটিয়ালি, আধুনিক, মাইজভান্ডারীও গায়। সর্বোপরি, এসব শাটল সিঙ্গারদের সুরের মূর্ছনায় মুখরিত থাকে শাটল ট্রেন। সুর মিলিয়ে ওশানোগ্রাফি ডিপার্টমেন্টের সাফওয়া বিনতে সাইফ সুপ্তিও বলছিলেন, ্য়ঁড়ঃ;শাটলের বগি পিটিয়ে বেসুরে গলায় গান গাওয়া দলের মাতিয়ে রাখা পরিবেশ, কারও কারও চুলের গুচ্ছখানি এলিয়ে দেওয়া শাটলের জানালার পাশে কাশবনের সাথে মাখামাখি মুহূর্তগুলো যুগ যুগ ধরে চলতে থাকবে যতদিন শাটলের গল্প শেষ না হয়...।্য়ঁড়ঃ; বলছিলেন ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের মোঃ রিপন সরকার, ্য়ঁড়ঃ;আমরা কয়েক হাজার শিক্ষার্থী প্রতিদিন চলাচল করি এই ট্রেনে। শাটল ট্রেন কে আমি চলন্ত বা ভ্রাম্যমাণ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় মনে করি। স্বপ্নিল হাজারো তরুণ - তরুণীর সুখ,দুঃখ, হাসি - কান্না, প্রেম, বিচ্ছেদ, খুনসুটির চিরন্তন সাক্ষী হয়ে গ্রাম- নগর পেরিয়ে ছুটে চলেছে প্রতিনিয়ত। নৈসর্গিক সৌন্দর্যের চবি ক্যাম্পাসের ঘুম ভাঙ্গে শাটলের হুইসেলে। প্রতিটা চবিয়ানের মতো আমার কাছে শাটল মানে এক ভালোবাসার নাম।্য়ঁড়ঃ; বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী সুরাইয়া ইসলাম মিমির অনুভূতিটা এমন, ্য়ঁড়ঃ;সবুজে ঘেরা চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য হলেও অন্যতম প্রধান আকর্ষণ শাটল ট্রেন। প্রতিদিন হাসি,গল্প,আড্ডা,গান বাজনা নিয়ে ছুটতে ছুটতে উপস্থিত হয় প্রিয় ক্যাম্পাসে। এই শাটল ট্রেন এই গড়ে ওঠে আমাদের একেঅপরের বন্ধুত্ব,প্রেম,  ভালোবাসা।কেউ কেউ এখানে গান গাইতে গাইতে হয়ে যায় বিখ্যাত গায়ক ও,শাটল ট্রেন এমনই এক শিল্প। অনেক শিক্ষার্থীর স্বপ্ন এই শাটল ট্রেনের যাত্রী হওয়ার। পৃথিবীর একমাত্র শাটল বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী এবং শাটল ট্রেনের নিয়মিত যাত্রী হতে পেরে আমি গর্বিত।ভালোবাসি শাটল ট্রেন।্য়ঁড়ঃ; তবে পরিসংখ্যান বিভাগের কানিজ ফাতেমা অনেকটা অভিযোগের সুরে বলছিলেন, ্য়ঁড়ঃ;শাটল, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণসঞ্চারক,হাজারো শিক্ষার্থীর জীবনের জানা- অজানা অসংখ্য গল্পের আঁতুড়ঘর; যেখানে হয়েছে নতুন নতুন ব্যা-ের হাতেখড়ি,চবির বহুবছরের ঐতিহ্য।বর্তমানে শাটলের সাথে যুক্ত করা মালবগি,সিট ধরার প্রতিযোগিতা, তদারককারীর অভাব আর অসতর্কভাবে ছাদে,ইঞ্জিনে,দরজায় ঝুলে যাতায়াত করতে গিয়ে ঘটছে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। ফলে প্রশ্ন উঠে নিরাপত্তার, পরিচ্ছন্নতার এবং প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয় বগি-সংযোজনের। প্রতিটি চবিয়ানের এখন দাবী - বগিবৃদ্ধিসহ শাটলের ত্রুটিসমূহ পর্যবেক্ষণ ও দূরীকরণ এবং নিরাপদ শাটল বাস্তবায়নে কর্তৃপক্ষের পদক্ষেপ।্য়ঁড়ঃ; আরবি বিভাগের হাবিব আযাদের অনুভূতিটা আরেকটু ভিন্ন, ্য়ঁড়ঃ;চট্টগ্রাম শহরেই বসবাস হওয়াতে শাটল ট্রেনের সাথে পরিচয়।ইচ্ছাটা ওখান থেকেই।এখন তো নিয়মিত চড়েই ক্যাম্পাসে যাই।একটু কষ্ট হলেও আমি উপভোগ করি।সিট ধরার জন্য ক্লাস শেষ করেই দৌড় কিংবা কাউকে অনুরোধ একটা সিলের জন্য।আবার কখনো কখনো অন্যদের জন্য সিট ধরা।সেজন্য ট্রিট দাবী।ট্রেনে বসে বন্ধুদের সাথে হাসি,গান,গল্প সে এক ভিন্নরকম ভালো লাগা..!্য়ঁড়ঃ; চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীর নিজের অজান্তেই মনের সঙ্গে মিশে গেছে শাটল যা তারা নিজেরাই জানে না। ভাবতে ভাবতে কখন যে ট্রেন চলে আসে চবি জংশনে তা টেরই পাওয়া যায় না।এখানে জন্ম নেয় হাজারো স্মৃতি,যার শেষ নেই!

মহান একুশে ফেব্রুয়ারি আজ .....

‘আমার ভায়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি/ আমি কি ভুলিতে পারি’— না, বাঙালি জাতি ভোলেনি পূর্বপুরুষের মহা.....

পিতার লাশের অপেক্ষায় দুই যমজ .....

এইচ এম কাওসার আহমেদ ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএর ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী। কাজ করতেন চুড়িহাট্টায় এক ফা.....

প্রতি বছর বাড়ছে আট লাখ বেকার: স.....

গত ১০ বছরে অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে অনেক উন্নয়ন হলেও কর্মসংস্থান প্রবৃদ্ধি মূল চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ফলে প্র.....

শুধু খামখেয়ালিতে ভাড়া করা বিম.....

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের কর্মকর্তাদের খামখেয়ালিপনায় ইজিপ্ট এয়ার থেকে লিজ নেয়া নষ্ট দুটি উড়োজাহাজের পে.....

পুলিশের হাতে নিরীহ মানুষ যেন হ.....

পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, পুলিশের হাতে যেন কোনো নিরীহ মানুষ হয়রানি শ.....

বাংলাদেশ নিয়ে মিথ্যা সংবাদ, মি.....

সীমান্ত পরিস্থিতি নিয়ে মিয়ানমারের বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রকাশ করায় বাংলাদেশে .....

বাংলাদেশ দুর্নীতিতে বিশ্বে ১.....

ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল (টিআই)-এর দুর্নীতির ধারণা সূচক অনুযায়ী বাংলাদেশে দুর্নীতি বেড়েছে। শীর্ষ .....

বিশ্বের শীর্ষ ১০০ চিন্তাবিদদ.....

রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বিশ্বের শীর্ষ ১০০ চিন্তাবিদের তালিকায় স্থান পেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ‘প.....

টিআইবির বক্তব্য প্রত্যাখ্যান.....

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল (টিআইবি) যে গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ত.....

প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষর জালে.....

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বাক্ষর হুবহু জাল করে কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে চক্রের মূলহোতা হেলাল উদ্দিনস.....

নতুন মন্ত্রি পরিষদে স্থান পেল.....

নতুন মন্ত্রিপরিষদ শপথ গ্রহণ করবে আগামীকাল। তাই এরই মধ্যে যারা মন্ত্রিসভায় স্থান পাচ্ছেন তাদের নাম ঘোষণা কর.....

আবার থ্রি-জি ও ফোর-জি বন্ধের নি.....

আজ থেকে ভোটের দিন পর্যন্ত মোবাইল ইন্টারনেটের থ্রিজি-ফোরজি সেবা বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ.....