• ঢাকা
  • শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩ | ১৫ মাঘ, ১৪২৯

নিহত সৌদি প্রবাসী ছেলের লাশ দেশে আনতে রাষ্ট্রীয় সহযোগিতা চান পিতামাতা

নিহত সৌদি প্রবাসী ছেলের লাশ দেশে আনতে রাষ্ট্রীয় সহযোগিতা চান পিতামাতা

আব্দুর রহমান বিশ্বাস, কমলনগর (লক্ষ্মীপুর): সৌদি আরবের রিয়াদ শহরের নিকটতম আল হারমোলিয়াহ এলাকার একটি ছাগলের খামারে নিহত বাংলাদেশী যুবক আবদুর রহমানের লাশ দেশে আনার কোন উপায় পাচ্ছে না তার পরিবার। পিতামাতা জানে না লাশ আনতে কি করতে হবে? কোথায় যেতে হবে? ঘটনার পর অতিবাহিত হয়েছে ৪ মাস। বাবা মা পাগলের মতো ছুটছেন এদিক ওদিক।

পরিবারের দাবী মালিকপক্ষের লোকেরা রহমানকে নির্যাতনে হত্যা করে। গত ১ মে সৌদি আরবের পুলিশ নিহতের রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করে।

গত সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) নিহতের বাবা মোঃ হানিফ ও ভাই আবুল কাশেম এ তথ্য জানায়। আবদুর রহমান লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার চর লরেঞ্চ ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডস্থ উত্তর চর লরেঞ্চ গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন।

সোমবার নিহত রহমানের ছোট বোনের স্বামী সৌদি প্রবাসী মোঃ ইউছুপ মোবাইল ফোনে জানায়, শালার লাশ দেশে পাঠানো এবং কিভাবে সে মারা গেছে তা জানার জন্য কয়েকবার সৌদি দূতাবাসে যোগাযোগ করেছেন তিনি। কিন্ত দূতাবাস থেকে মৃত্যুর কারণ নির্ণয়ে ভালো সহযোগিতা পাচ্ছেন না।

অন্যদিকে তিনি সৌদি পুলিশের সাথে যোগাযোগ করলে পুলিশ তাকে জানিয়েছে রহমানের মৃত্যুর প্রতিবেদন বাংলাদেশ দূতাবাসে পাঠানো হয়েছে। লাশ বর্তমানে সৌদি হাসপাতালের মর্গে রয়েছে। এখন যা জানাবে সব বাংলাদেশ দূতাবাস জানাবে। এদিন দুপুরে সৌদি দূতাবাসের একটি নাম্বারে কয়েকবার চেষ্টা করেও তাদের কোন বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি।

এদিকে নিহত রহমানের বাড়িতে গিয়ে দেখা গেছে বাড়িতে মা বাবা আহজারি করছেন। তারা যে কোন ভাবে ছেলের লাশ দেশে আনতে চান এবং ছেলেকে হত্যার বিচার চান। সেজন্য তারা সৌদি আরবের বাংলাদেশ দূতাবাস এবং সরকারের সহযোগিতা চান।

পারিবারিক ভাবে জানা যায়, গত ১ মে সৌদি আরবের পুলিশ রহমানের রক্তাক্ত লাশ তার কর্মস্থল থেকে উদ্ধার করলেও পরিবার ৫ দিন পর সে খবর জানতে পারে পরিবার। সৌদি আরবে অবস্থানরত স্বজনদের বরাত দিয়ে পরিবারের সদস্যরা জানায়, আবদুর রহমানকে খুন করে তার লাশ রাস্তার পাশে ফেলে রেখে গাড়ি চাপায় মৃত্যু হয়েছে বলে প্রচার করে সেখানকার মালিকপক্ষ। তবে উক্ত ঘটনায় পুলিশ এক সৌদি নাগরিক ও একজন সুদানি নাগরিককে আটক করে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের পর ছেড়ে দিয়েছে বলেও জানান নিহতের পরিবার।

জানাজানি হলে গত ১০ মে ছেলেকে হত্যার বিচার ও ক্ষতিপূরণ চেয়ে সৌদি সরকারের নিকট লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে আবেদন করেছেন আবদুর রহমানের বাবা মোঃ হানিফ। ১৪ মে তারিখে জেলা প্রশাসক কার্যালয় থেকে তাকে একটি প্রাপ্তি স্বীকার দিয়েছে। এরপর প্রশাসন বা অন্য কোন পক্ষ থেকে আর কোন তথ্য কেউ জানতে চায়নি বলে জানান, মোঃ হানিফ।

নিহতের মা লাকী বেগম জানায়, সংসারে অভাব অনটনের কারণে এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে বাড়ির পাশের এক আত্মীয়র মাধ্যমে ২০১৯ ছেলেকে সৌদি পাঠান। কিন্ত সৌদি গিয়ে জানতে পারে তার চাকুরী মরুভূমিতে উট চরানো। এ কাজ করা তারপক্ষে মোটে সম্ভব ছিল না। তবুও বহু কষ্টে তিনি ২ বছর কাটিয়েছেন। করোনার সময়ও তার কোন ছুটি ছিল না। এর মাঝে কারণে অকারণে মালিকপক্ষ তাকে মারধর করতো। পরে অতি নির্যাতনে সে সেখান থেকে একদিন তিনি পালিয়ে অন্যত্র চলে যান। যুক্ত হন নতুন আরেকটি কাজে। কিন্ত এখানে গিয়েও সে জানতে পারে তার কাজ মরুভূমিতে ছাগলের খামারের শ্রমিক। নতুন কর্মক্ষেত্রে সুদানি সহকর্মীদের সাথে তার প্রায় ঝগড়া হতো। পরে ১ মে তারিখে রক্তাক্ত অবস্থায় তার লাশ পাওয়া যায়। পরিবারের একমাত্র উপার্জনশীল ছেলেকে হারিয়ে এখন চোখে মুখে অন্ধকার দেখেছে বাবা-মা। অন্যদিকে ছেলের লাশ দেশে আনতে আহাজারি করছে অসহায় পরিবার।

লাকী বেগম জানায়, সৌদি আরবে ঈদের আগের দিন বিকেল বেলায় ছেলের সাথে তার শেষ কথা হচ্ছিল। কথা বলার এক ফাঁকে হঠাৎ করে আবদুর রহমান চিৎকার দিয়ে বলে উঠে মা আজরাইল আসে। এ কথা বলেই ফোন কেটে রেখে দেয়। এরপর এদিক থেকে বারবার ফোন দিয়েও আর তাকে পাওয়া যায়নি। অন্যদিকে বাড়ি থেকে পর পর দুদিন তার ফোনে যোগাযোগ করে যখন কোন উত্তর পাওয়া যায়নি, তখন ঘটনাটি তিনি তার মেয়ের জামাই সৌদি প্রবাসী মোঃ ইউছুপকে জানায়। পরে ইউছুপ আল হারমোলিয়াহ এলাকায় গিয়ে খোঁজ নিয়ে জানতে পারে আবদুর রহমানের সাথে তার সুদানি এক সহকর্মীর ঝগড়া হয়েছিল। ঝগড়ার একদিন পর রহমানের রক্তাক্ত লাশ পাওয়া যায়। ইউছুপকে সেখানকার স্থানীয়রা জানায়, আবদুর রহমানকে খুন করা হয়েছে। পরে ইউছুপ স্থানীয় হাসপাতালের মর্গে গিয়ে তার লাশ দেখে আসে।

বিদেশে অবস্থানরত স্বজনদের বরাত দিয়ে পরিবারের সদগস্যরা জানায়, সুদানি কোন একসহকর্মী এবং মালিকের একআত্মীয় রহমান কে খুন করে গাড়ি চাপায় তার মৃত্যু হয়েছে বলে মিথ্যা প্রচার করে। তখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারিত একটি ভিডিওতে দেখা যায়, রহমানের লাশের মাথার পিছনে জখম রয়েছে। শরীরের বাকি অংশগুলো অক্ষত।

এঘটনায় লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো” কামরুজ্জামান জানায়, নিহত রহমানের প্রকৃত ঘটনা জানতে ও লাশ দেশে আনতে পরিবার তার নিকট আবেদন করেছিল। তিনি সে আবেদন জেলা প্রশাসককে জানিয়েন। অন্যদিকে সোমবার রহমানের পরিবার স্থানীয় এক দালালের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে গেছেন।বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য তিনি পুলিশেকে নির্দেশ দিয়েছেন।

জাটকা ও মা মাছ নিধন বন্ধে আরও বেশি মোবাইল কোর্ট পরিচালনার আহ্বান মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রীর

রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জেলাপ্রশাসক সম্মেলন। ছবি-লাখোকন্ঠ

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: মৎস্য ও প্রাণ.....

অনিবন্ধিত পোর্টাল ও আইপিটিভির গুজব বড় চ্যালেঞ্জ : তথ্যমন্ত্রী

ছবি - ইন্টারনেট

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: অনিবন্ধিত অনলাইন পোর্টাল, আইপিটিভি ও ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে গুজ.....

‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ বিনির্মাণের প্রধান হাতিয়ার ডিজিটাল সংযোগ : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী আজ বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলা-২০২৩ এর উদ্বো.....

পদোন্নতি পেয়ে ৪ জন অতিরিক্ত আইজিপি

বাঁ থেকে- জামিল আহমদ, ওয়াই এম বেলালুর রহমান, মীর রেজাউল আলম ও মো. হুমায়ুন কবির

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: বাংলাদ.....

সমৃদ্ধ দেশ গড়তে কাস্টমসকে দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখতে হবে : রাষ্ট্রপতি

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। ছবি : পিআইডি লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সুখী-সমৃদ্ধ ও উন্নত একটি .....

রমজানে শক্ত ব্যবস্থা নেবেন, ডিসিদের উদ্দেশে বাণিজ্যমন্ত্রী

জেলা প্রশাসক সম্মেলনের দ্বিতীয় দিন দুপুরে বাণিজ্যমন্ত্রী। ছবি-সংগৃহিত

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: রমজানে দ্র.....

বাঙালির পেট ঠাণ্ডা, মাথাও ঠাণ্ডা: খাদ্যমন্ত্রী

ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে খাদ্য ও কৃষি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে ডিসিদের সেশনের পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে খাদ্যম.....

রাষ্ট্রপতি নির্বাচন ১৯ ফেব্রুয়ারি

ইসি ভবনে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল। ছবি সংগ.....

এলসি খোলার সংকট শিগগিরই স্বাভাবিক হবে: গভর্নর

ছবি : ইউএনবি  

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: সামনে রমজান মাসে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের নিরবচ্ছিন্ন সরবরাহ নিশ্চিত.....

সব নাগরিককে পেনশনের আওতায় আনতে বিল পাশ

ছবি-জাতীয় সংসদ

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: দেশের সব নাগরিককে পেনশনের আওতায় আনতে জাতীয় সংসদে বিল পাশ হয়েছে। মঙ্.....

'বিরোধীদল বলেছে ইভিএমে খরচ বেশি, এটা বন্ধ করে দিয়েছি'

 ছবি-সংগৃহিত

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: দেড়শ আসনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে ভোট নেওয়ার প্রকল্প বাদ দেওয়ার বিষ.....

ডিসিদের ২৫ দফা নির্দেশনা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে জেলা প্রশাসক সম্মেলনে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা.....