• ঢাকা
  • বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ | ১৮ মাঘ, ১৪২৯

রেলওয়ের সকল ট্রেড ইউনিয়ন নেতাদের নিয়ে পোষ্য সোসাইটির সংলাপ

রেলওয়ের সকল ট্রেড ইউনিয়ন নেতাদের নিয়ে পোষ্য সোসাইটির সংলাপ

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীতে রেলওয়ের অন্তর্ভুক্ত সকল ট্রেড ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দদের নিয়ে বাংলাদেশ রেলওয়ে পোষ্য সোসাইটির কেন্দ্রীয় কমিটির সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার (৫ই অক্টোবর) সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের তোফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলের ভিআইপি লাউঞ্জে আয়োজিত ‘বাংলাদেশ রেলওয়ের নিয়োগ, পদোন্নতি, বিধিমালা সংশোধন, আউটসোর্সিং বাতিল, টিএলআর/অস্থায়ী শ্রমিকদের স্থায়ীকরণ, কর্মরত অবস্থায় মৃত্যুবরণকারী কর্মচারীর পোষ্যকে সরাসরি নিয়োগ, কর্মচারী ও পোষ্যদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় করণীয়’ শীর্ষক সংলাপে বাংলাদেশ রেলওয়ে পোষ্য সোসাইটির কেন্দ্রীয় সভাপতি মনিরুজ্জামান মনিরের সভাপতিত্বে প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শ্রমিক কর্মচারী ঐক্য পরিষদ (স্কোপ) ও সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের সভাপতি রাজেকুজ্জামান রতন। আয়োজিত উক্ত সংলাপে রেলওয়ে পোষ্য সোসাইটি চট্টগ্রাম জেলা সভাপতি সাইদুজ্জামান শিপনের সঞ্চালনায় অন্যান্য বিশেষ আলোচকদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী রেলওয়ে শ্রমিক ও কর্মচারী দলের সাধারণ সম্পাদক এম. আর. মঞ্জু, বাংলাদেশ রেলওয়ে কারিগরি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এস. কে. বারী, বি.আর.ই.এল এর সভাপতি কাজী আনোয়ারুল হক, বাংলাদেশ রেলওয়ে অফিস কর্মচারী পরিষদের আহবায়ক সৈয়দ আবজুরুল হক তুহিন, দি ডেইলি স্টারের প্রধান কর্পোরেট এফেয়ার্স এ.এস.এম নজরুল ইসলাম, বাংলাদেশ রেলওয়ে পোষ্য সোসাইটির উপদেষ্টা ইউসুফ রশীদি, রাজ্জাক মল্লিক, পোষ্য সোসাইটির কেন্দ্রীয় যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন সাগর, সাংগঠনিক সম্পাদক আমজাদ হোসেন বাবু, দপ্তর সম্পাদক মাহাবুবর রহমান মানিক। চট্টগ্রাম জেলার সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল আলম ঠাকুর, সাংগঠনিক সম্পাদক মাজহারুল ইসলাম রানা, দপ্তর সম্পাদক মোঃ সাকেল হোসেন শাকিল। সংলাপ থেকে এই সিদ্ধান্তে সকলে একমত হয় যে, রেলকে ধ্বংস করার চক্রান্তকারীরা পোষ্যদের পাশ কাটিয়ে তথাকথিত বিধিমালার নামে নিজেদের লোক নিয়োগের মাধ্যমে পারিবারিক বিত্ত গড়ে তুলছে। অথচ যাদের রক্তমাখা ঘামে রেল চলছে, তাদের সন্তানদের রেল প্রতিষ্ঠানে পা রাখার সুযোগ নেই। দেশের জনগণের সেবামূলক এই রেলওয়ের লক্ষ কোটি টাকার সম্পদ মন্ত্রী সচিব সহ কতিপয় ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার যোগসাজশে কোটি কোটি টাকার বিনিময়ে বহিরাগত গোষ্ঠীর হাতে হস্তান্তর করা হচ্ছে। এই লাভজনক প্রতিষ্ঠানটিকে কতিপয় কর্মকর্তার লুটপাটের কারণে প্রতি বছর অলাভজনক প্রতিষ্ঠান হিসেবে প্রমাণ করার প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে। রেল জনগণের সম্পদ, এই সম্পদকে বাঁচাতে হলে প্রথমেই রেলওয়ে কর্মচারী ও রেল পোষ্যদের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। রেলওয়ের ভূমি ভূমিদস্যুদের হাত থেকে বেদখল করে তাতে রেলকর্মচারী ও পোষ্যদের স্থায়ী আবাসন ও কর্ম সংস্থানের ব্যবস্থা করা, রেলের পরিত্যক্ত ভূমি  কর্মচারী ও পোষ্যের কাছে কর্মসংস্থান গড়ার জন্য লিজ দেয়া, রেলের হাসপাতালকে আধুনিক ও মান সম্মত চিকিৎসা সেবার আওতায় আনা, রেলের বিশুদ্ধ পানির ব্যবস্থা করা, নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ ব্যবস্থা করা, বর্তমান বাজার পরিস্থিতি বিবেচনা করে বেতন ভাতা নির্ধারণ করা, রিটায়ার্ড কর্মচারী কর্মকর্তাদের রেলের ভূমিতে আবাসনের ব্যবস্থা করা, রেলের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার মান বাড়ানো, রেলের জায়গায় প্রাইভেট বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে কর্মচারী/পোষ্যের নাম মাত্র মূল্যে টিকিট ও বিনোদনের ব্যবস্থা করে দেয়া, কর্মচারী ও পোষ্যদের সকল অধিকার প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে রেল রক্ষার আন্দোলনকে জাতীয় আন্দোলন হিসেবে রূপরেখা প্রদান করতে হবে। অনুষ্ঠানে সমাপনী বক্তব্যে বাংলাদেশ রেলওয়ে পোষ্য সোসাইটির সভাপতি মনিরুজ্জামান মনির বলেন, ‘বিধিমালা ২০২০ একটি স্বৈরাচারীতামূলক নিয়োগবিধি, এই নিয়োগবিধি দ্রæত সংশোধন করে কর্মচারী বান্ধব নিয়োগ বিধির মাধ্যমে জনবল নিয়োগ করতে হবে এবং ত্রুটিপূর্ণ নিয়োগ বিধিতে নিয়োগ প্রক্রিয়া বন্ধ করতে হবে। নিয়োগবিধি ২০২০ কর্মচারী ও রেল পোষ্যদের অধিকার গলাটিপে হত্যার নিয়োগ বিধিতে পরিনত হয়েছে। এক দিকে পোষ্যরা তাদের ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে, অন্য দিকে পূর্বের নিয়োগ বিধির চাইতে বর্তমান নিয়োগ বিধিতে নিয়োগ দূর্নীতির ব্যাপকতা লাভ করেছে। মেধাবী নির্বাচনের নামে নিয়োগ দূর্নীতির মাধ্যমে অযোগ্যদের যোগ্য হিসেবে নির্বাচন করা হচ্ছে। রেলওয়ে পোষ্য সোসাইটির ৮ দফা দাবী মেনে না নিলে রেলওয়ের সকল শ্রমিক কর্মচারী ও রেলপোষ্যদের সম্মিলিত করে অচিরেই রেলভবন কে কেন্দ্র করে কঠোর কর্মসূচির ডাক দেওয়া হবে।’

বায়ুদূষণ রোধে বিশেষ অভিযানের নির্দেশ দিলেন পরিবেশমন্ত্রী

আজ মঙ্গলবার পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত এডিপি সভায় পরিবেশমন্ত্রী ছবি লাখো.....

মুসলিম উম্মাহকে ফিলিস্তিনের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে আসেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ওআইসির সদস্যভুক্ত সাতটি দেশের হাইকমিশনা.....

কড়া নিরাপত্তা বলয়ে থাকবে বইমেলা- ডিএমপি

ছবি-সংগৃহিত

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: বইমেলা কেন্দ্র করে দুর্ঘটনা এড়াতে মেলা প্রাঙ্গণ, শাহবাগ, পলাশীসহ আশপাশ.....

সবচেয়ে দুর্নীতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় বাংলাদেশ ১২তম

ছবি-সংগৃহিত

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: বিশ্বের ১৮০টি দেশের মধ্যে ‘সবচেয়ে দুর্নীতিগ্রস্ত’ দেশের তালিকায় ব.....

১৯১টি নিউজ পোর্টাল বন্ধে চিঠি দেওয়া হয়েছে: তথ্যমন্ত্রী

ফাইল ফটো

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, জনমনে বিভ্রান্তি ছড়ায়- এমন .....

রাজশাহীতে আ.লীগের সমাবেশে বিএনপির চেয়ে ১৪ গুণ বেশি লোক হয়েছে : তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ সোমবার সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন। ছবি : পিআইডি

&nb.....

ঢাকায় আর্জেন্টিনার দূতাবাস চালু ২৭ ফেব্রুয়ারি

আর্জেন্টিনার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সান্তিয়াগো ক্যাফিয়েরো ও বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। ছব.....

অনির্বাচিত কাউকে দিয়ে দেশের উন্নয়ন হয় না: প্রধানমন্ত্রী

ছবি-সংগৃহিত

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন:  প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেছেন, নির্বাচনের মাধ.....

জাটকা ও মা মাছ নিধন বন্ধে আরও বেশি মোবাইল কোর্ট পরিচালনার আহ্বান মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রীর

রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জেলাপ্রশাসক সম্মেলন। ছবি-লাখোকন্ঠ

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: মৎস্য ও প্রাণ.....

অনিবন্ধিত পোর্টাল ও আইপিটিভির গুজব বড় চ্যালেঞ্জ : তথ্যমন্ত্রী

ছবি - ইন্টারনেট

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: অনিবন্ধিত অনলাইন পোর্টাল, আইপিটিভি ও ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে গুজ.....

‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ বিনির্মাণের প্রধান হাতিয়ার ডিজিটাল সংযোগ : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী আজ বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলা-২০২৩ এর উদ্বো.....

পদোন্নতি পেয়ে ৪ জন অতিরিক্ত আইজিপি

বাঁ থেকে- জামিল আহমদ, ওয়াই এম বেলালুর রহমান, মীর রেজাউল আলম ও মো. হুমায়ুন কবির

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: বাংলাদ.....