• ঢাকা
  • শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২ | ১৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯

আলোচিত নুসরাত হত্যার মামলা নিয়ে আবারো উত্তাল সোনাগাজী

আলোচিত নুসরাত হত্যার মামলা নিয়ে আবারো উত্তাল সোনাগাজী

আবুল হাসনাত রিন্টু, ফেনী : ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত হত্যাকাণ্ডে দণ্ডপ্রাপ্তদের মুক্তি এবং পুনরায় মামলাটির বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবিতে সোনাগাজী জিরো পয়েন্টে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছে সাজাপ্রাপ্ত আসামিদের স্বজন ও স্থানীয় এলাকাবাসী।

শনিবার (৮ অক্টোবর) সকালে সোনাগাজী পৌর শহরের জিরো পয়েন্টে আওয়ামী লীগ অফিসের সামনে এ মানবন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় অনেকে কাপনের কাপড় গায়ে বেঁধে আহাজারী করতে থাকেন। মানববন্ধনে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআই প্রধান বনজ কুমারের বিচার বিভাগীয় শাস্তির দাবি করেন। সোনাগাজী উপজেলা আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণে নির্দোষ ১৬ জন মানুষকে বনজ কুমার মিডিয়া ড্রায়ালের মাধ্যমে মিথ্যা কাল্পনিক ঘটনা সাজিয়ে মৃত্যুদণ্ডের আসামি করেন। আত্মহত্যাকে হত্যা বলে চালিয়ে দেয়া হয়। উক্ত মামলার বিচার বিভাগীয় পূর্ণ তদন্ত দাবি করেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর কমিশনার নুরনবী লিটন বলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি রুহুল আমীন ও সাবেক কমিশনার মাকসুদ সম্পূর্ণ ষড়যন্ত্রের শিকার। তারা মডিয়া ট্রায়ালের মাধ্যমে সোনাগাজী দুর্নীতিবাজ পৌর মেয়র খোকনের ষড়যন্ত্রে শিকার। তিনি নির্বাচনের আগে তার পথের কাঁটা সরানোর জন্য টাকা খরচ করে তার বিরোধী নিরপরাধ লোকদের ফাঁসিয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ করেন।

সোনাগাজী উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহিন গনি মামলার বিচার বিভাগীয় পূর্ণ তদন্তের দাবি করে বলেন, এ মামলায় মিথ্যা, সাজানো ও ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ১৬ আসামিকে সাজা দেয়া হয়েছে।

মানববন্ধনে আরো উপস্থিত ছিলেন- পৌর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আবু তৈয়ব বাবুল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সদর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শামছুল আরেফিন, সোনাগাজী ৭ নম্বর ওয়ার্ড পৌর কমিশনার ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা জামাল উদ্দিন নয়ন, ৪ নম্বর ওয়ার্ড পৌর কমিশনার ও যুবলীগ নেতা বেলাল হোসেন।

মানববন্ধনে শিক্ষক আফসার উদ্দিনের স্ত্রী সুরাইয়া হোসেন ইফাত বলেন, ‘নুসরাতের পরিবার ন্যায় বিচার পেলে আমরা কেন ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত হবো। তারা এ রায়কে ফরমায়েশী রায় উল্লেখ করে উচ্চ আদালতে ন্যায় বিচার আশা করেন। গত ৬ এপ্রিল আমার স্বামী কলেজ রোড়ে ছাত্র-ছাত্রীদের প্রাইভেট পড়ানোর সময় নুসরাত অগ্নিদগ্ধ হয়। কলেজ রোড়, জিরো পয়েন্ট, মাদরাসা এলাকাসহ পুরো পৌর শহর সোনাগাজী মডেল থানা ও পৌরসভার সিসি ক্যামেরার আওতায় ছিল। ঘটনার পরে গত ১০ এপ্রিল পিবিআই সিসিটিভি ফুটেজ নিয়ে যায়।’‘মামলার বিচার চলাকালীন সময়ে আমাদের আইনজীবী ওই দিনের সিসিটিভি ফুটেজ তলবের জন্য আবেদন করলেও সেটা পাওয়া যায়নি। সিসিটিভি ফুটেজ গায়েব করে ঘটনা ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে আমার নির্দোষ স্বামীকে ফাঁসিয়েছে। সিসিটিভি ফুটেজ হাজির করা হোক। যদি সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায় আমার স্বামী মাদরাসা গেটে পাহারায় ছিলেন, তবে যেকোনো দণ্ড আমরা মাাথা পেতে নিব। আদালতে ৮৭ জন সাক্ষীর কেউ আমার স্বামীর বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেয়নি। নুসরাতের পরিবারে যারা সাক্ষী দিয়েছে তারাও কোনো সাক্ষ্য দেয়নি। নুসরাতের অডিও-ভিডিও জবানবন্দিতে আমার স্বামীর নাম বলেনি। তারপরও আদালত আমার স্বামীকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে। আমরা এ রায় মানি না।‘

মানববন্ধনে অংশগ্রহনকারী শিক্ষার্থী নুসরাত জাহান সানজিদা, সাদিয়া হোসেন, সুমাইয়া আক্তার, সাদিয়া জাহান রোজা, আমজাদ হোসেন সুমন ও শাহাদাত হোসেন জুয়েল বলেন, গত ৬ এপ্রিল নুসরাত যখন অগ্নিদগ্ধ হয় তখন আফসার স্যার কলেজ রোড়ে আমাদের প্রাইভেট পড়াচ্ছিলেন। ওই সময় আমরা খবরটি জানতে পারলে স্যার আমাদের ছুটি দিয়ে বাসায় চলে যান। থানার সিসি ক্যামেরার ফুটেজে তার প্রমাণ মিলবে। সিসিটিভি ফুটেজ গায়েব করে আমাদের স্যারকে ফাঁসানো হয়েছে। ঘটনার সময় স্যার আমাদের সামনে ছিলেন। তিনি ওই সময় গেইট পাহারা দেয় কিভাবে? আমরা আমাদের নির্দোষ স্যারের মুক্তি চাই। এতদিন প্রশাসনের ভয়ে আমরা মুখ খুলতে সাহস করিনি। এখন নির্দোষ ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ড হওয়াতে আমারা মুখ খুলতে বাধ্য হয়েছি।’

মানবববন্ধনে বাবার মুক্তি চেয়ে প্ল্যাকার্ড হাতে হাজির ছিলেন আফসার উদ্দিনের শিশু সন্তান আরদিনা আফসার আলিফ ও আহনাফ বিন আফসার ওয়াসিম। তারা প্রধানমন্ত্রীর কাছে তাদের বাবাকে ফিরিয়ে দেয়ার আবেদন জানান।

ভুক্তোভোগী পরিবারের দাবি তারা রায়ের পর পরই সোনাগাজীতে মানববন্ধন করতে চাইলে প্রশাসনের বাধায় তা করা সম্ভব হয়নি৷ তারা কাফনের কাপড় পরে মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন।

দীর্ঘ প্রায় ৪ বছর যাবত তাদের বুক ফাটা আর্তনাদ কেউ শুনেনি, তাই তারা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও সংশ্লিষ্ট সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করে ন্যায়বিচার দাবি করেন৷ সবার একটাই দাবি মামলাটি পুনরায় তদন্তের মাধ্যমে নির্দোষ মানুষগুলো যেন মুক্তি পায়৷

পদ্মা ও মেঘনা নামে নতুন বিভাগ করার সিদ্ধান্ত স্থগিত

লাখোকণ্ঠ অনলাইন ।।  কুমিল্লা ও ফরিদপুর অঞ্চলের জেলাগুলো নিয়ে ‘পদ্মা’ ও ‘মেঘনা’ নামে নতুন দুই বিভাগ ক.....

আবাদি জমি রক্ষায় পরিকল্পিত শিল্পায়নের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক ।।  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি নিশ্চিত করতে আবাদি জমি রক্ষায় পরিকল্পিত&.....

সংকট সমাধানে যুবকরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে: প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক ।।  সংকট সমাধানে যুবকরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ.....

জাতীয় যুবদিবস ২০২২ উপলক্ষ্যে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগ

অনলাইন ডেস্ক || আগামীকাল ১ নভেম্বর (মঙ্গলবার) যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে দেশব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি ব.....

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে বিদায় ও বরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক ।।  প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আমিনুল ইসলাম খানের বিদায় ও নবনিযুক্ত স.....

দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায় প্রতিটি বাহিনীকে দক্ষ করে গড়ে তোলা হচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তাঁর সরকার দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায় প্রতিটি বাহ.....

চিকিৎসার জন্য জার্মান ও যুক্তরাজ্যের উদ্দেশ্যে রাষ্ট্রপতির ঢাকা ত্যাগ

অনলাইন ডেস্ক : রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও চোখের চিকিৎসার জন্য জার্মানি ও যুক্তরাজ্যে ১৬ .....

সাকিবকে আর অ্যাম্বাসেডর হিসেবে ব্যবহার করবে না দুদক

অনলাইন ডেস্ক ।।  ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে আর দুদকের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে ব্যবহার করা হবে না। আ.....

পায়রা সমুদ্রবন্দরে আগামীকাল বেশ কয়েকটি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামীকাল পায়রা সমুদ্রবন্দরে আরও ভালো সুযোগ-সুবিধাসহ এর সুষ্ঠু কার্.....

চীন কখনো মুসলমানদের বিরুদ্ধে কাজ করে না : রাষ্ট্রদূত লি

অনলাইন ডেস্ক ।।  বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বলেছেন, এই অঞ্চলে উন্নয়ন, শান্তি ও স্থিতিশীল.....

রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে তীব্র যানজট

স্টাফ রিপোর্টার ।। ভোগান্তির আরেক নাম রাজধানীর বিমানবন্দর সড়ক। সামান্য বৃষ্টি হলেই গাজীপুরের টঙ্গী থেকে গ.....

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং : দেশে ১৩ জনের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক ।।  ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং আজ ভোরে বরিশাল-চট্টগ্রাম উপকূল অতিক্রম করার ফলে বাংলাদেশের ছয় জেলায় অ.....