• ঢাকা
  • বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ | ১৮ মাঘ, ১৪২৯

১৮ বছর পর মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি’কে গ্রেফতার করলো র‌্যাব-৩

১৮ বছর পর মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি’কে গ্রেফতার করলো র‌্যাব-৩

নিজস্ব প্রতিবেদক ।।  ফেনী জেলার সোনাগাজীতে ২০০৩ সালে মাকে বেঁধে রেখে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ১৩ বছরের মেয়েকে গণধর্ষণের চাঞ্চল্যকর ঘটনায় ১৮ বছর ধরে পলাতক মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত আসামি লাতু মিয়াকে রাজধানীর বাড্ডা এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৩।

র‌্যাব-৩ এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত ১৭ অক্টোবর রাতে রাজধানীর মেরুল বাড্ডা এলাকা হতে ফেনী জেলার সোনাগাজীতে ২০০৩ সালে মাকে বেঁধে রেখে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ১৩ বছরের মেয়েকে গণধর্ষণের চাঞ্চল্যকর ঘটনায় মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত অন্যতম আসামী ১। অলি নবী @ লাতু মিয়া (৫৫), পিতা-মৃত আব্দুর রশিদ, সাং-নাজিরপুর, থানা-সোনাগাজী, জেলা-ফেনীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

২০০৩ সালের ১৩ মে গভীর রাতে সোনাগাজী উপজেলার নবাবপুর ইউনিয়নের একটি বাড়ীতে ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে বিধবা মা ও ১৩ বছরের মেয়েকে জোর করে টেনে হিঁছড়ে বাইরে নিয়ে এসে মাকে বেঁধে রেখে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে হত্যার ভয় দেখিয়ে আটকে রেখে মায়ের সামনেই মেয়েকে লাতু মিয়া, ফারুক, জাহাঙ্গীর আলম ও কাশেম মিলে গণধর্ষণ করে।

উক্ত ঘটনায় ভিকটিমের মা বাদী হয়ে পরদিন সোনাগাজী থানায় মামলা নং-০৪ তারিখ-১৩/০৫/২০০৩ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ সংশোধনী ২০০৩ এর ৯ (৩) ধারায় আসামী মোঃ ফারুক, জাহাঙ্গীর আলম, আবুল কাশেম ও মোঃ লাতু মিয়াসহ চার জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত শেষে ১৩ আগস্ট ২০০৩ বিজ্ঞ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

মামলার বিচারিক কার্যক্রম শেষে দীর্ঘ ১৯ বছর পর ১৪ জুলাই ২০২২ খ্রিঃ বিজ্ঞ আদালত জাহাঙ্গীর আলম, আবুল কাশেম ও মোঃ লাতু মিয়াসহ অভিযুক্ত তিন আসামীর বিরুদ্ধে অপরাধ সন্দেহাতীতভাবে প্রমানিত হওয়ায় মৃত্যুদন্ডের আদেশ প্রদান করেন। একই সঙ্গে প্রত্যেক আসামীকে ০২ লাখ টাকা অর্থদন্ড করেন এবং মোঃ ফারুকের বিরুদ্ধে অপরাধ সন্দেহাতীতভাবে প্রমানিত না হওয়ায় খালাস প্রদান করেন। ধৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, ঘটনার সময়ে সোনাগাজী এলাকায় মোঃ ফারুক এর নেতৃত্বে সে, জাহাঙ্গীর আলম ও কাশেমসহ আরও অনেকে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার, গ্রাম্য সালিশ বিচারে হস্তক্ষেপ, নিরীহ মানুষকে হয়রানি করে অর্থ উপার্জন, ভূমি দখল, জলমহাল দখল, খাস জমি দখল, এলাকায় গ্রুপিং সৃষ্টি করে ফায়দা নেয়া, বিবদমান বিষয়ে উসকানী দেয়া, এলাকায় ত্রাস সৃষ্টির জন্য সশস্ত্র মহড়া দেয়া, অসহায় নারীদের উত্যক্ত করাসহ তারা নানা অপকর্ম করে বেড়াত। উক্ত ঘটনার ভিকটিমের পিতা শিশুকালে মারা যাওয়ার পর ভিকটিমের বিধবা মাতা অতি কষ্টে দিন যাপন করছিলেন।

তারা বিভিন্ন সময়ে ভিকটিম ও তার মাকে কুপ্রস্তাব দিত। কিন্তু উক্ত কুপ্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় ২০০৩ সালের ১৩ মে গভীর রাতে তারা চারজন মিলে উক্ত ঘটনা ঘটায়। ঘটনার পরদিন উক্ত ঘটনা ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে প্রচারিত হলে তারা আত্মগোপনে চলে যায়। কিন্তু পরবর্তীতে তারা আইন শৃঙ্খলা বাহিনী কর্তৃক গ্রেফতার হয়ে কিছুদিন জেল খাটার পর জামিনে বের হয়ে সে, জাহাঙ্গীর ও কাশেম পলাতক জীবন শুরু করে। কিন্তু উক্ত সময়ে উক্ত মামলার আসামী ফারুক নিয়মিত বিজ্ঞ আদালতে হাজিরা দিত। জামিনে বের হওয়ার পর মামলা তুলে নেয়ার জন্য তারা ভিকটিম ও ভিকটিমের মাকে ভয় ভীতি প্রদর্শন করে।

গ্রেফতারকৃত লাতু মিয়ার কোন দৃশ্যমান পেশা নেই। সে নিরক্ষর। সে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার, চুরি, ডাকাতিসহ নানা অপকর্মে জড়িত ছিল। তার নামে ফেনী ফুলগাজী থানায় একটি ডাকাতি ও গণধর্ষণ মামলাসহ তিনটি মামলা রয়েছে।

২০০৩ সালে গণধর্ষণের ঘটনার পর তার পলাতক জীবন শুরু হয়। উক্ত ঘটনার পর সে চট্টগ্রামে গিয়ে রিক্সা চালক হিসেবে জীবিকা নির্বাহ শুরু করে। কিন্তু কোন কায়িক পরিশ্রম তার ভালো লাগত না। তারপর সে চুরি ডাকাতিতে জড়িয়ে পড়ে। একটি ডাকাতির ঘটনায় সে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী কর্তৃক গ্রেফতার হয়ে জেল খাটে। জামিনে বের হয়ে সে গোপনে তার বিভিন্ন আত্মীয় স্বজনের বাসায় অতিথি হিসেবে জীবন যাপন করত। সে মাঝে মাঝে তার নিজ বাড়িতে এসে গোপনে তার স্ত্রী সন্তানের সাথে দেখা করত এবং তাদের নিকট হতে অর্থ নিয়ে যেত। তারপর সে কিছুদিন সিলেটে মাজার এলাকায় ঘুরে বেড়ায়। একপর্যায়ে সে ঢাকায় এসে হকার হিসেবে ফুটপাতে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি বিক্রয় করত। উক্ত পেশায় আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর নজরে পড়ার আশংকা থেকে সে দারোয়ানের চাকুরী নেয়। পলাতক সময়ে সে নিজেকে অলি নবী হিসেবে পরিচয় দিত। মামলার রায়ে মৃত্যুদন্ডের আদেশ হওয়ার পর সে ঢাকায় একটি মাজারে আত্মগোপন করে।

গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

বায়ুদূষণ রোধে বিশেষ অভিযানের নির্দেশ দিলেন পরিবেশমন্ত্রী

আজ মঙ্গলবার পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত এডিপি সভায় পরিবেশমন্ত্রী ছবি লাখো.....

মুসলিম উম্মাহকে ফিলিস্তিনের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে আসেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ওআইসির সদস্যভুক্ত সাতটি দেশের হাইকমিশনা.....

কড়া নিরাপত্তা বলয়ে থাকবে বইমেলা- ডিএমপি

ছবি-সংগৃহিত

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: বইমেলা কেন্দ্র করে দুর্ঘটনা এড়াতে মেলা প্রাঙ্গণ, শাহবাগ, পলাশীসহ আশপাশ.....

সবচেয়ে দুর্নীতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় বাংলাদেশ ১২তম

ছবি-সংগৃহিত

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: বিশ্বের ১৮০টি দেশের মধ্যে ‘সবচেয়ে দুর্নীতিগ্রস্ত’ দেশের তালিকায় ব.....

১৯১টি নিউজ পোর্টাল বন্ধে চিঠি দেওয়া হয়েছে: তথ্যমন্ত্রী

ফাইল ফটো

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, জনমনে বিভ্রান্তি ছড়ায়- এমন .....

রাজশাহীতে আ.লীগের সমাবেশে বিএনপির চেয়ে ১৪ গুণ বেশি লোক হয়েছে : তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ সোমবার সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন। ছবি : পিআইডি

&nb.....

ঢাকায় আর্জেন্টিনার দূতাবাস চালু ২৭ ফেব্রুয়ারি

আর্জেন্টিনার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সান্তিয়াগো ক্যাফিয়েরো ও বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। ছব.....

অনির্বাচিত কাউকে দিয়ে দেশের উন্নয়ন হয় না: প্রধানমন্ত্রী

ছবি-সংগৃহিত

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন:  প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেছেন, নির্বাচনের মাধ.....

জাটকা ও মা মাছ নিধন বন্ধে আরও বেশি মোবাইল কোর্ট পরিচালনার আহ্বান মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রীর

রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জেলাপ্রশাসক সম্মেলন। ছবি-লাখোকন্ঠ

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: মৎস্য ও প্রাণ.....

অনিবন্ধিত পোর্টাল ও আইপিটিভির গুজব বড় চ্যালেঞ্জ : তথ্যমন্ত্রী

ছবি - ইন্টারনেট

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: অনিবন্ধিত অনলাইন পোর্টাল, আইপিটিভি ও ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে গুজ.....

‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ বিনির্মাণের প্রধান হাতিয়ার ডিজিটাল সংযোগ : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী আজ বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলা-২০২৩ এর উদ্বো.....

পদোন্নতি পেয়ে ৪ জন অতিরিক্ত আইজিপি

বাঁ থেকে- জামিল আহমদ, ওয়াই এম বেলালুর রহমান, মীর রেজাউল আলম ও মো. হুমায়ুন কবির

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: বাংলাদ.....