• ঢাকা
  • শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২ | ১৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯

ইসলামে মুয়াজ্জিন ও খাদেমের মর্যাদা

ইসলামে মুয়াজ্জিন ও খাদেমের মর্যাদা

মুফতি মাহমুদ হাসান : মসজিদ আল্লাহর ঘর, ইসলামের কেন্দ্র এবং পৃথিবীর পবিত্রতম স্থান। আল্লাহ তাআলা একে বিশেষ সম্মান ও মর্যাদা দান করেছেন। পবিত্র কোরআনে মসজিদ ও এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের মর্যাদার কথা উল্লেখ করেছেন। রাসুলুল্লাহ (সা.) মক্কা শরিফ থেকে হিজরতকালে ‘কুবা’ নামক জায়গায় পৌঁছেই সর্বপ্রথম সেখানে একটি মসজিদ নির্মাণ করেন। অতঃপর মদিনা শরিফে পৌঁছেও তিনি প্রথম সুযোগেই মসজিদে নববী নির্মাণের ইচ্ছা পোষণ করেন। এমনকি সাহাবাদের সঙ্গে মসজিদ নির্মাণকাজে তিনি সশরীরে অংশগ্রহণ করেন।

এটা স্বতঃসিদ্ধ কথা যে সম্পর্কের ভিত্তিতে মর্যাদায় পার্থক্য হয়ে থাকে। কোনো কিছু স্বাভাবিক ছোট মনে হলেও আল্লাহ ও রাসুল (সা.)-এর সঙ্গে সম্পর্কের ভিত্তিতে তা মহৎ ও প্রিয়তর হয়ে যায়। তার মহিমা হয়ে ওঠে আকাশচুম্বী। বিষয়টি মসজিদের মুয়াজ্জিন ও খাদেমদের ক্ষেত্রেও অনুরূপ। এসব ব্যক্তিবর্গ সাধারণত কোরআনের হাফেজ, দ্বিনের আলেম এবং পরহেজগার ব্যক্তি হওয়ায় এমনিতেই সম্মানিত; কিন্তু মসজিদের সঙ্গে সম্পৃক্ততার ভিত্তিতে তাঁদের অবস্থান আরো উচ্চতরে পৌঁছে যায়।

মুয়াজ্জিনের মর্যাদা....

আজান ইসলামের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ প্রতীক। এর গুরুত্ব ও মহত্ব সর্বস্বীকৃত। আর আজানের সঙ্গে সম্পৃক্ততার কারণে মুয়াজ্জিনের মর্যাদাও অনেক উঁচু। মুয়াজ্জিনের ফজিলত সম্পর্কে হাদিসে অনেক বর্ণনা রয়েছে। নিম্নে এর কিছু উল্লেখ করা হলো :

১.   আবু সাঈদ খুদরি (রা.) বলেন, আমি রাসুলুল্লাহ (সা.)-কে বলতে শুনেছি, ‘জিন ও মানুষসহ যারাই মুয়াজ্জিনের আওয়াজ শোনে তারা সবাই কিয়ামতের দিন তাঁর পক্ষে সাক্ষ্য দেবে। ’ (বুখারি, হাদিস : ৬০৯)

২.   আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘যদি মানুষ আজান দেওয়া এবং প্রথম কাতারে দাঁড়ানোর ফজিলত জানত, যদি লটারি ছাড়া কোনো বিকল্প না পেত তবে অবশ্যই তাতে লটারি দিত। তদ্রুপ যদি তারা জানত যে নামাজে আগে আসার কী ফজিলত, তাহলে অবশ্যই দৌড়ে আসত। তদ্রুপ যদি জানা থাকত যে এশা ও ফজরের জামাতের কী ফজিলত, অবশ্যই হামাগুঁড়ি দিয়ে হলেও জামাতে আসত। (বুখারি, হাদিস : ৬১৫)

৩.   মুয়াবিয়া (রা.) বলেন, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন: ‘কিয়ামতের দিন মুয়াজ্জিনদের মাথা সবার থেকে উঁচু থাকবে। ’ (মুসলিম, হাদিস : ৩৮৭)

৪.   ইবনে ওমর (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেন, ‘তিন প্রকারের মানুষ কিয়ামতের দিন মেশকের টিলার ওপর থাকবে। যাঁদের মর্যাদা দেখে পূর্ববর্তী ও পরবর্তী সবাই ঈর্ষান্বিত হবে। এক হলো, সেই ইমাম, যার প্রতি মুক্তাদিরা সন্তুষ্ট; দ্বিতীয়ত, সেই মুয়াজ্জিন যে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের আজান দেয়; তৃতীয়ত, এমন দাস যে আল্লাহ ও তার মালিকের হক আদায় করে। ’ (মুসনাদে আহমদ : হাদিস ৪৭৯৯)

সারকথা, আজান দেওয়া কোনো ছোট কাজ নয়; বরং আল্লাহর কাছে এর মূল্য অনেক বেশি। কেননা মুয়াজ্জিন যেভাবে আজানের মাধ্যমে আল্লাহর মহিমা ঘোষণা করে এবং তাঁর একত্ববাদের গান গায়, ঠিক একইভাবে মহান আল্লাহও তাকে সেভাবেই পুরস্কৃত করবেন।

মসজিদের খাদেমদের মর্যাদা....

মসজিদের খেদমত, পরিচ্ছন্নতা ও মসজিদ আবর্জনামুক্ত করা অনেক সওয়াবের কাজ। রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেন : ‘যে ব্যক্তি মসজিদ থেকে আবর্জনা সরিয়ে নেয়, আল্লাহ তাআলা তার জন্য জান্নাতে একটি ঘর তৈরি করেন। ’ (ইবনে মাজাহ, হাদিস : ৭৫৭)

একজন হাবশি নারী রাসুলুল্লাহ (সা.)-এর মসজিদের সেবা করতেন, মসজিদের আবর্জনা ও ধুলাবালি পরিষ্কার করতেন। কয়েক দিন তাকে দেখা যায়নি। রাসুলুল্লাহ (সা.) জিজ্ঞেস করলেন, মহিলা কোথায়? আবু বকর (রা.) বললেন, মহিলাটি মারা গেছে এবং আমরা তাকে কবর দিয়েছি। তিনি বললেন, আমাকে মৃত্যুসংবাদ দিলে না কেন? সাহাবিরা জিজ্ঞাসা করলেন, তখন গভীর রাত ছিল, তাই আপনাকে কষ্ট দেওয়া আমাদের পছন্দ হয়নি। তিনি বলেন, নারীর কবর কোথায়? সাহাবায়ে কেরাম কবর দেখালে রাসুলুল্লাহ (সা.) ওই নারীর কবরে জানাজা আদায় করেন। (বুখারি, হাদিস : ১৩৩৭)

হাদিসটি থেকে প্রতীয়মান হয় যে মহানবী (সা.) মসজিদের খাদেমকে কতটা ভালোবাসতেন এবং এ সম্পর্কে কতটুকু গুরুত্ব দিতেন।

তদ্রুপ সাহাবায়ে কেরামও মসজিদের খেদমতকে নিজেদের জন্য অনেক সৌভাগ্যময় মনে করতেন। খলিফা উমর (রা.) একবার কুবা মসজিদে এসে নামাজ পড়লেন। অতঃপর একজনকে খেজুরের ডাল আনতে বললেন। খেজুরের ডাল আনা হলে তিনি তাতে কাপড় মুড়িয়ে ঝাড়ুর মতো বানিয়ে মসজিদ পরিষ্কার করলেন। (ফাতহুল বারি- ইবনে রজব ৩/৩৫৩)

বর্তমান সমাজের চিত্র....

মসজিদের মুয়াজ্জিন ও খাদেমদের এতটা মর্যাদা ও গুরুত্ব থাকা সত্ত্বেও আজ প্রায়ই দেখা যায় যে মসজিদের দায়িত্বশীলগণ তাদের প্রতিনিয়ত হেয়প্রতিপন্ন করছে। তাদের অধিকার আদায়ে অবহেলা করছে। এমনকি তাদের সম্মানও ক্ষুণ্ন করা হচ্ছে। এটা অনেক দুঃখজনক। যখন একজন সাধারণ মুসলমানকে অবমাননা করা এবং অবজ্ঞা করা জায়েজ নয়, তখন মহান দায়িত্ব পালনের কারণে সমাজে বিশিষ্ট অবস্থানে থাকা মসজিদের মুয়াজ্জিন ও খাদেমদের অপমান করা কিভাবে বৈধ হতে পারে?

তাই পরিচালনা কমিটির কর্তব্য হলো, নিজেদের সর্বোচ্চ শাসক হিসেবে বিবেচনা না করে মসজিদের খাদেম মনে করা। মুয়াজ্জিন ও খাদেমদের সঙ্গে সহানুভূতি, ভালোবাসা ও দয়ার আচরণ করা। তাদের আত্মসম্মানের প্রতি বিশেষ যত্ন নেওয়া। এ ছাড়া বর্তমান পরিস্থিতি অনুযায়ী তাদের পার্থিব চাহিদা মেটানোর জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করা উচিত।

পদ্মা ও মেঘনা নামে নতুন বিভাগ করার সিদ্ধান্ত স্থগিত

লাখোকণ্ঠ অনলাইন ।।  কুমিল্লা ও ফরিদপুর অঞ্চলের জেলাগুলো নিয়ে ‘পদ্মা’ ও ‘মেঘনা’ নামে নতুন দুই বিভাগ ক.....

আবাদি জমি রক্ষায় পরিকল্পিত শিল্পায়নের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক ।।  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি নিশ্চিত করতে আবাদি জমি রক্ষায় পরিকল্পিত&.....

সংকট সমাধানে যুবকরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে: প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক ।।  সংকট সমাধানে যুবকরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ.....

জাতীয় যুবদিবস ২০২২ উপলক্ষ্যে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগ

অনলাইন ডেস্ক || আগামীকাল ১ নভেম্বর (মঙ্গলবার) যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে দেশব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি ব.....

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে বিদায় ও বরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক ।।  প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আমিনুল ইসলাম খানের বিদায় ও নবনিযুক্ত স.....

দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায় প্রতিটি বাহিনীকে দক্ষ করে গড়ে তোলা হচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তাঁর সরকার দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায় প্রতিটি বাহ.....

চিকিৎসার জন্য জার্মান ও যুক্তরাজ্যের উদ্দেশ্যে রাষ্ট্রপতির ঢাকা ত্যাগ

অনলাইন ডেস্ক : রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও চোখের চিকিৎসার জন্য জার্মানি ও যুক্তরাজ্যে ১৬ .....

সাকিবকে আর অ্যাম্বাসেডর হিসেবে ব্যবহার করবে না দুদক

অনলাইন ডেস্ক ।।  ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে আর দুদকের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে ব্যবহার করা হবে না। আ.....

পায়রা সমুদ্রবন্দরে আগামীকাল বেশ কয়েকটি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামীকাল পায়রা সমুদ্রবন্দরে আরও ভালো সুযোগ-সুবিধাসহ এর সুষ্ঠু কার্.....

চীন কখনো মুসলমানদের বিরুদ্ধে কাজ করে না : রাষ্ট্রদূত লি

অনলাইন ডেস্ক ।।  বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বলেছেন, এই অঞ্চলে উন্নয়ন, শান্তি ও স্থিতিশীল.....

রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে তীব্র যানজট

স্টাফ রিপোর্টার ।। ভোগান্তির আরেক নাম রাজধানীর বিমানবন্দর সড়ক। সামান্য বৃষ্টি হলেই গাজীপুরের টঙ্গী থেকে গ.....

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং : দেশে ১৩ জনের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক ।।  ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং আজ ভোরে বরিশাল-চট্টগ্রাম উপকূল অতিক্রম করার ফলে বাংলাদেশের ছয় জেলায় অ.....