• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ | ১০ ফাল্গুন, ১৪২৫

তারল্য সংকটে ব্যাংক : এক সপ্তাহে ধার সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা

তারল্য সংকটে ব্যাংক : এক সপ্তাহে ধার সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা

নির্বাচন সামনে রেখে হঠাৎ করেই তীব্র হয়েছে ব্যাংকে নগদ টাকার চাহিদা। ছোট থেকে বড় অঙ্কের অর্থ তোলার চাপে ১০টিরও বেশি ব্যাংক নগদ টাকার সংকটে পড়েছে। বাধ্য হয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছ থেকে ধার নিতে হচ্ছে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোকে। ২১টি ব্যাংক টাকা ধার নিয়েছে সম্প্রতি। এক সপ্তাহের ব্যবধানে সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকার বেশি ধার দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এতে মুদ্রাবাজারে সুদের হারেও এসেছে পরিবর্তন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের পাশাপাশি অন্য বাণিজ্যিক ব্যাংক থেকেও ব্যাংকগুলোর ধার বৃদ্ধি পেয়েছে এ সময়ে। ফলে পর্যাপ্ত তারল্য হাতে থাকা ব্যাংকগুলো কলমানি মার্কেট ও আন্তঃব্যাংক মুদ্রাবাজারে সুদে টাকা খাটিয়ে বাড়তি আয় করছে। হঠাৎ করেই নগদ টাকার চাহিদা বৃদ্ধিকে ব্যাংকারদের মধ্যে কেউ কেউ ব্যাংক খাত থেকে সরকারি ঋণের পরিমাণ বৃদ্ধি ও আমানতের সুদহার বেশি হওয়াকেও দায়ী করেছেন।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে, গত সপ্তাহে দেশে কার্যরত ২১টি ব্যাংক নগদ টাকার চাহিদা মেটাতে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে রেপোর মাধ্যমে সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকার বেশি নিয়েছে। এরই মধ্যে গত ১৮ ডিসেম্বর ৫৪৬ কোটি ও ১৯ ডিসেম্বর নিয়েছে ৭৬৩ কোটি ৫৫ লাখ টাকা। সর্বশেষ ২০ ডিসেম্বর নিয়েছে সবচেয়ে বেশি ৯২৪ কোটি ৪৬ লাখ টাকা।

এ বিষয়ে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহীদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকারস, বাংলাদেশের (এবিবি) চেয়ারম্যান ও ঢাকা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মাহবুবুর রহমান শেয়ার বিজকে বলেন, ‘ব্যাংক খাত থেকে সরকারের ঋণ নেওয়ার পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে। ব্যাংকগুলোতে এখন ডিসেম্বর ক্লোজিং চলছে, টাকার চাপ তো একটু থাকবে। এর সঙ্গে যোগ হয়েছে জাতীয় নির্বাচন। সাধারণ আমানতের চেয়ে কম সুদ হওয়ায় বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো ধার করছে।’

প্রসঙ্গত, নগদ টাকার চাহিদা মেটাতে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কাছ থেকে টাকা ধার নিতে পারে। ধার নেওয়ার এই পদ্ধতি রেপো নামে পরিচিত। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বর্তমান রোপো রেট ছয় অর্থাৎ বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কাছ থেকে আপৎকালে নগদ অর্থের চাহিদা মেটাতে ছয় শতাংশ সুদে অর্থ ধার নিতে পারে।

সূত্র জানিয়েছে, গত সপ্তাহে কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে সবচেয়ে বেশি ধার নিয়েছে এবি ব্যাংক। ব্যাংকটি ৪০০ কোটি টাকা নিয়েছে। এছাড়া স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক ২৫ কোটি, ইস্টার্ন ব্যাংক ১৮৩ কোটি, ট্রাস্ট ব্যাংক ৩৫০ কোটি, ওয়ান ব্যাংক ২০০ কোটি, ন্যাশনাল ব্যাংক ৯৭ কোটি ৫০ লাখ, উত্তরা ব্যাংক ২৭ কোটি ও এনআরবি ব্যাংক নিয়েছে ৪১ কোটি টাকা।

উচ্চহারের খেলাপি ঋণের চাপে নাজুক অবস্থা পার করছে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলো। বেসরকারি খাতের কয়েকটি ব্যাংকের অবস্থাও একই রকম। অনেকে প্রভিশন রাখতে পারলেও বছর শেষে তা রাখতে পারবে না বলে মনে করছেন ব্যাংকাররা। ফলে ব্যাংকগুলো কোনোমতে দৈনন্দিন নগদ টাকার চাহিদা মিটিয়ে চলছে। এমন অবস্থায় নির্বাচন উপলক্ষে ব্যাংক থেকে নগদ টাকা তোলার পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে।এদিকে নগদ টাকার সংকটে সুদের হার বৃদ্ধি পেয়েছে কলমানি মার্কেট ও আন্তঃব্যাংক রেপোতে। ডিসেম্বর মাসে গতকাল পর্যন্ত আন্তঃব্যাংক রেপোতে সবচেয়ে বেশি টাকা ধার নেওয়া হয়েছে গত ১৮ ডিসেম্বর। দিনটিতে দুই হাজার ৩২২ কোটি ৭১ লাখ টাকা ধার নিয়েছে বিভিন্ন ব্যাংক। ওই দিন সর্বোচ্চ সুদের হার ছিল সর্বনিম্ন চার দশমিক ২৫ ও সর্বোচ্চ ৯ শতাংশ। গড় সুদহার দাঁড়িয়েছে পাঁচ দশমিক ৮৬ শতাংশ।

অথচ এর আগের দিন আন্তঃব্যাংক রেপোতে সুদহার ছিল সর্বনিম্ন দুই ও সর্বোচ্চ ছয় শতাংশ। গড় সুদহার ছিল তিন দশমিক ৬৮ শতাংশ। গত ১৯ ও ২০ ডিসেম্বর আন্তঃব্যাংক রোপোতে সুদের হার ফের বৃদ্ধি পেয়ে বর্তমানে সর্বনিম্নসাড়ে চার শতাংশের ওপরে রয়েছে।

অপরদিকে নগদ টাকার এ সংকটে কলমানি মার্কেটেও বেড়েছে সুদের হার। গত ১৮ ডিসেম্বর কলমানি মার্কেটে সর্বনিম্ন এক দশমিক ৭৫ শতাংশ সুদে টাকা ধার পাওয়া যেত। পরের দিন ১৯ ডিসেম্বর থেকেই সর্বনিম্ন সুদের হার উঠেছে দুই দশমিক ৮০ শতাংশে। এক শতাংশের বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে এক দিনের ব্যবধানেই। সর্বশেষ গত ২০ ডিসেম্বরে কলমানি মার্কেটে ছয় হাজার ১৮৮ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত সেপ্টেম্বর শেষে ব্যাংক খাতে খেলাপি ঋণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৯৯ হাজার ৩৭০ কোটি টাকার বেশি। এর বিপরীতে নিরাপত্তা সঞ্চিতি বা প্রভিশন রাখতে গিয়ে অনেক ব্যাংকের কাছেই উদ্বৃত্ত তারল্য নেই। পাশাপাশি প্রায় ১৫টি ব্যাংকের এডিআর অনুপাত নির্ধারিত সীমার চেয়ে বেশি রয়েছে। ফলে নির্বাচনকে সামনে রেখে নগদ টাকার চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় ব্যাংকগুলোকে টাকা ধার করতে হচ্ছে বলে মনে করছেন খাত বিশ্লেষকরা।

মহান একুশে ফেব্রুয়ারি আজ .....

‘আমার ভায়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি/ আমি কি ভুলিতে পারি’— না, বাঙালি জাতি ভোলেনি পূর্বপুরুষের মহা.....

পিতার লাশের অপেক্ষায় দুই যমজ .....

এইচ এম কাওসার আহমেদ ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএর ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী। কাজ করতেন চুড়িহাট্টায় এক ফা.....

প্রতি বছর বাড়ছে আট লাখ বেকার: স.....

গত ১০ বছরে অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে অনেক উন্নয়ন হলেও কর্মসংস্থান প্রবৃদ্ধি মূল চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ফলে প্র.....

শুধু খামখেয়ালিতে ভাড়া করা বিম.....

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের কর্মকর্তাদের খামখেয়ালিপনায় ইজিপ্ট এয়ার থেকে লিজ নেয়া নষ্ট দুটি উড়োজাহাজের পে.....

পুলিশের হাতে নিরীহ মানুষ যেন হ.....

পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, পুলিশের হাতে যেন কোনো নিরীহ মানুষ হয়রানি শ.....

বাংলাদেশ নিয়ে মিথ্যা সংবাদ, মি.....

সীমান্ত পরিস্থিতি নিয়ে মিয়ানমারের বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রকাশ করায় বাংলাদেশে .....

বাংলাদেশ দুর্নীতিতে বিশ্বে ১.....

ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল (টিআই)-এর দুর্নীতির ধারণা সূচক অনুযায়ী বাংলাদেশে দুর্নীতি বেড়েছে। শীর্ষ .....

বিশ্বের শীর্ষ ১০০ চিন্তাবিদদ.....

রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বিশ্বের শীর্ষ ১০০ চিন্তাবিদের তালিকায় স্থান পেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ‘প.....

টিআইবির বক্তব্য প্রত্যাখ্যান.....

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল (টিআইবি) যে গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ত.....

প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষর জালে.....

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বাক্ষর হুবহু জাল করে কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে চক্রের মূলহোতা হেলাল উদ্দিনস.....

নতুন মন্ত্রি পরিষদে স্থান পেল.....

নতুন মন্ত্রিপরিষদ শপথ গ্রহণ করবে আগামীকাল। তাই এরই মধ্যে যারা মন্ত্রিসভায় স্থান পাচ্ছেন তাদের নাম ঘোষণা কর.....

আবার থ্রি-জি ও ফোর-জি বন্ধের নি.....

আজ থেকে ভোটের দিন পর্যন্ত মোবাইল ইন্টারনেটের থ্রিজি-ফোরজি সেবা বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ.....