• ঢাকা
  • রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ | ২২ মাঘ, ১৪২৯

তেঁতুলিয়া থেকে টেকনাফ পায়ে হেঁটে যাত্রা: ৬ষ্ঠ দিনে বগুড়ায় প্রবেশ সেই বাবা-ছেলের

তেঁতুলিয়া থেকে টেকনাফ পায়ে হেঁটে যাত্রা: ৬ষ্ঠ দিনে বগুড়ায় প্রবেশ সেই বাবা-ছেলের

গাইবান্ধা প্রতিনিধি || তেঁতুলিয়া থেকে পায়ে হাঁটার ৬ষ্ঠ দিনে রাজশাহী বিভাগের বগুড়া জেলায় প্রবেশ করলেন সেই বাবা-ছেলে। ‘আলোকিত বাংলার স্বপ্নযাত্রা, আমরা করব জয়’ -এই স্লোগানে গত ২০ নভেম্বর ভোর ৬: ৪০ মিনিটে তেঁতুলিয়া থেকে টেকনাফের উদ্দেশ্যে পায়ে হেঁটে যাত্রা শুরু করেছে গাইবান্ধার আলোচিত দুই বাবা-ছেলে। এই পদযাত্রার ষষ্ঠ দিন রংপুর বিভাগের সীমানা অতিক্রম করে রাজশাহী বিভাগের সীমানা বগুড়ায় প্রবেশ করছেন। শনিবার (২৬ নভেম্বর) দুপুর দুইটার দিকে বগুড়ার মোকামতলা এলাকার মহাসড়কে দেখা মিলে এই ভ্রমণকারীদের। সাদা জার্সি-ক্যাপ পরিহিত ও পিঠে ব্যাগ নিয়ে দুর্বার গতিতে হেঁটে চলেছেন গন্তব্যের দিকে। পদযাত্রাকারী ব্যক্তিরা হলেনÍগাইবান্ধা পৌর শহরের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের মধ্য-গোবিন্দপুর (সাদেক চত্বর) এলাকার অনারারী ক্যাপ্টেন (অব:) সাদেক আলী সরদার, প্যারা কমান্ডো (৬৭) ও তার ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান (৩৭) একজন উদ্যোক্তা। ইতোপূর্বে তারা ৪৯তম মিশন পর্যন্ত ১ হাজার ৬২৪ কিলোমিটার পথ হেঁটে দেশ ভ্রমণে আলোড়ন সৃষ্টি করেছেন। এরই ধারাবাহিকতায় গত রোববার (২০ নভেম্বর) সকালে ৫০তম মিশন হিসেবে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ার বাংলাবান্ধা জিরো পয়েন্ট থেকে কক্সবাজারের টেকনাফ-ছেঁড়াদ্বীপের উদ্দেশ্যে হাঁটা শুরু করেন। এ পথের দূরত্ব হবে প্রায় ১ হাজার ১৫ কিলোমিটার। বাবা ছেলের তেঁতুলিয়া টু টেকনাফ এর ৫০ তম মিশন এর এই ভ্রমণটি সফল হলে তাদের হাঁটার অংক দাঁড়াবে ২ হাজার ৬ শ ৩৯ কিলোমিটার। হাঁটার সময় দেশ ও জনস্বার্থে পথপ্রান্তে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও হাট-বাজারে গিয়ে সামাজের মূল্যবোধ বৃদ্ধিমূলক অবহিতকরণ আলোচনা করেছেন। বাল্যবিয়ে, মাদক, ধুমপান ও কিশোরগ্যাং প্রতিরোধ করাসহ সামাজিক মূল্যবোধ যেন অবক্ষয় না হয়, এসব বিষয়ে মানুষদের সঙ্গে জোরালোভাবে কথা বলছেন তারা। একই সঙ্গে বাবা-ছেলের সম্পর্ক বন্ধুত্বপূর্ণ হওয়ার বিষয়ে স্থানীয় লোকজনকে সচেতন করেছেন এবং সবাইকে গাছ লাগানোর জন্য উদ্বুদ্ধ করেছেন পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার্থে, অন্তত একটি করে গাছ লাগান পরিবেশ বাঁচান। অতীতের মিশনের মতো এ মিশনেও তারা সাধারণ মানুষ ও তরুণ প্রজন্মকে পায়ে হাঁটার প্রয়োজনীয়তা, বিভিন্ন সামাজিক উন্নয়নে সচেতনতামূলক প্রচারণা চালাচ্ছেন। জানা যায়, গত বছরের ১৪ ডিসেম্বর গাইবান্ধা সাদেক চত্বর থেকে স্থানীয় ফুলছড়ি থানা চত্বর পর্যন্ত প্রথম পথ হাঁটাচলা শুরু করেন। এখানে প্রাথমিকভাবে ২৮ কিলোমিটার হাঁটছেন তারা। এরপর পর্যায়ক্রমে গাইবান্ধা থেকে বগুড়া, রংপুর, দিনাজপুর-ঘোড়াঘাট-হিলি ও পঞ্চগড়-বাংলাবান্ধাসহ আরও বেশ কিছু স্থানে পদার্পণ করেন। এছাড়াও গাইবান্ধার সাদেক চত্বর থেকে লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা পর্যন্ত দেড়শ কিলোমিটার পথ একটানা পায়ে হেঁটে অতিক্রম করেন এই দুঃসাহসিক বাবা-ছেলে। যা বর্তমানে পৃথিবীর ইতিহাসে একটি রেকর্ড হয়ে রয়েছে, কারণ এই দেড়শ কিলোমিটার পথ অতিক্রমে বাবা-ছেলে রাত্রি বেলা না ঘুমিয়ে বিশ্রামহীন ভাবে (এক রাত্রি দুই দিন) এক টানা ১৫০ কিলোমিটার পথ হেঁটে লালমনিরহাটের হাতিবান্ধা পৌঁছেছেন। ওইসব স্থানগুলোতে তারা দেখছেন দেশের নানা ইতিহাস-ঐতিহ্য ও দর্শনীয় স্থানসমূহ। সম্প্রতি গাইবান্ধা থেকে পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা জিরো পয়েন্ট পর্যন্ত টানা ২২৬ কিলোমিটার হেঁটে যাওয়াসহ সিলেট থেকে জাফলং পর্যন্ত ৫০ কিলোমিটার পথ ভ্রমণ করেছেন। এভাবে ৪৯তম মিশন পর্যন্ত পদযাত্রা করেছেন ১ হাজার ৬ শ ২৪ কিলোমিটার। বর্তমানে ৫০তম মিশনে হাঁটার লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে ১ হাজার ১৫ কিলোমিটার। আগামী ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবসের দিনে টেকনাফে পৌঁছতে পারবেন বলে আশা করছেন বাবা-ছেলে। সাদেক আলী সরদার কর্মজীবনে চাকরি করছিলেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে। ২০০৬ সালে অবসরগ্রহণ করেছেন। চাকরির সুবাদে হেঁটে শরীর চর্চার অভ্যাসটুকু রয়েছে তার। এ থেকে স্বপ্ন দেখেন বিশাল লম্বা পথ হেঁটে পাড়ি দিবেন দেশান্তরে। সেই জায়গায় যাওয়ার আগেই শুরু করছেন হেঁটে চলার অনুশীলন। সফরসঙ্গী হিসেবে যোগ দিয়েছেন তার ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান। মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আমাদের চলমান দীর্ঘপথ পায়ে হেঁটে যাওয়ার পাশাপাশি সামাজিক সচেতনতা বাড়াতে সকল পেশা-শ্রেণির মানুষদের উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। একই সঙ্গে দেশের বিভিন্ন জায়গা ভ্রমণ করে নানা ধরনের অভিজ্ঞতা অর্জনও হচ্ছে। সেটি দেশ ও দশের কল্যাণে কাজে লাগানোর চেষ্টা করব। সাদেক আলী সরদার জানান, এক সময় চাকরি থেকে অবসর নিয়ে শরীরে নানা রোগে বাসা বেঁধেছিল। কয়েক দফায় দীর্ঘপথ হাঁটাচলা করায় অনেকটাই সুস্থ আছি। যেন শরীরের শক্তি বেড়েছে কয়েকগুণ। এমন চর্চা সবার দরকার বলে মনে করি। তিনি আরও বলেন, বাংলাবান্ধা জিরো পয়েন্ট থেকে পদযাত্রাকালে স্থানীয় প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, সাংবাদিক ও বেশ কিছু যুবক আমাদের সহযোগিতা করছেন। সেই সঙ্গে পথে পথে বিভিন্ন মানুষের ভালোবাসায় সিক্ত হয়েছি। যা আমাদের স্বপ্নযাত্রার সহায়ক হিসেবে কাজে লাগছে। এজন্য সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।

ঢাকায় মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাইফুদ্দিন নাসুসন ইসমাইল আজ শনিবার ঢাকায় এসে পৌঁছালে তাঁকে অভ্যর্থনা দেওয়া .....

বিএনপি শীতের পাখি, তাদের দেখা যায় শুধু ভোটের সময়: তথ্যমন্ত্রী

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ - ফাইল ছবি

কক্সবাজার প্রতিনিধি:বিএনপির রাজনীতির সমালোচনা করে .....

জানুয়ারিতে সড়ক, রেল ও নৌপথে দুর্ঘটনায় নিহত ৬৪২

জানুয়ারিতে সারাদেশে ৫৯৩টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৫৮৫ জন নিহত হয়েছে - প্রতীকী ছবি

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: সারাদেশে গ.....

জাতিসংঘ শান্তি বিনির্মাণ কমিশনের সহ-সভাপতি বাংলাদেশ

ছবি : সংগৃহিত

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন:  জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ .....

পাঠ্যপুস্তক নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ালে ব্যবস্থা নেওয়া হবে : তথ্যমন্ত্রী

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ আজ শুক্রবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান প্রাঙ্গণে বইয়ের মোড়ক উন্মোচন শেষে .....

সেপ্টেম্বরে ভারত সফরে যেতে পারেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। পিআইডির ফাইল ছবি লাকোকন্ঠ প্রতিবেদন: ভার.....

আব্দুস সাত্তারকে ধরে রাখতে না পারা বিএনপির ব্যর্থতা: তথ্যমন্ত্রী

সচিবালয়ে তথ্য অধিদপ্তরের সম্মেলন কক্ষে ‘উন্নয়নের নব দিগন্ত’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্.....

জলাভূমি রক্ষা ও পুনরুদ্ধারে সরকার দৃঢ় প্রতিজ্ঞ হয়ে কাজ করছে-পরিবেশমন্ত্রী

ফটো-লাখোকন্ঠ

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন বলেছেন, মাননীয় প্র.....

সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটে ‘বাংলা সংস্করণ’ উদ্বোধন

হাইকোর্টের ফাইল ছবি

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন:  সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটের ‘বাংলা সংস্করণ’উদ্বোধন করা .....

পাতাল রেলের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বৃহস্পতিবার পাতাল রেলের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করেন। ছবি: সংগৃহিত

লাখোকন্ঠ প.....

দুর্নীতি সূচকে দেশকে এক ধাপ নামানো উদ্দেশ্যপ্রণোদিত : তথ্যমন্ত্রী

ছবি -সংগৃহিত

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, .....

‘কেউ কেউ দু-চার বছরের জন্য অনির্বাচিত সরকার ক্ষমতায় আনতে চায়’

ছবি : ফোকাস বাংলা  

লাখোকন্ঠ প্রতিবেদন: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘দেশের কেউ কেউ দু-চার বছরের জন্.....