• ঢাকা
  • শনিবার, ১৫ মে ২০২১ | ১ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮

কবি সন্তোষ ঢালী’র এক গুচ্ছ কবিতা

কবি সন্তোষ ঢালী’র এক গুচ্ছ কবিতা

সাহিত্য কন্ঠ: কবিতা

 

কবি সন্তোষ ঢালী’র এক গুচ্ছ কবিতা

০১.

মানুষ মানুষকে ছোঁবে না

 

মানুষ মানুষকে ছোঁবে না আর, জীবন ছোঁবে না জীবনমানুষ দেখবে না আর মানুষের মুখ মুখোশের অন্তরালে-সময়ের বুকে অভিশপ্ত ঝড়, পৃথিবীজুড়ে বীভৎস পুঁজের আলপনা;নিশ্বাসে ভয়, প্রশ্বাসে ভয়; বিশ্বাসে সংক্রমণভীতি উদয়াস্তউদ্বেগ বা শঙ্কা নয়, সংশয়ও নয়; বাতাসে নিশ্চিত মৃত্যুকণা হাসে-মানুষ যাবে না আর সমুদ্রস্নানে সূর্যোদয় কিংবা সূর্যাস্তে হাতে হাত ধরে,প্রিয়তমার ঠোঁটে ঠোঁট ছোঁয়াবে না আর প্রিয়তম নির্জন সৈকতে;

মানুষ কি তবে অশৌচ হয়ে গেছে একবিংশ শতাব্দীর শাপে?অন্তরে নিরন্তর স্পর্শভীতি তোমার আমার সবার-জাহান্নামে যাক   এইসব ছোঁয়াছুঁয়ির বালাই, মড়ক, মহামারি;মানুষ আবার মানুষকে ছোঁবে, জীবন ছোঁবে জীবন-আবার প্রাণের সাড়া জাগবে সৈকতে সৈকতে, মানুষ যাবে সমুদ্রস্নানেআবার মুখরিত হবে বসন্ত-বাতাস, দোল-উৎসব, বৈশাখের বটতলাআবার লেকের পাড় ধরে মানুষ হাঁটতে হাঁটতে হেঁটে যাবে কৃষ্ণচূড়ার তলে,তুরাগের তীর ধরে চলে যাবে গোলাপগ্রাম, হিজলবনের ধার-দুশ্চিন্তার বলিরেখা মুছে যাবে ললাট থেকে আনন্দ-হিল্লোলে;আবার হাসবে মানুষ নির্ভয়ে দোলনচাঁপার মতো প্রাণখোলা হাসিসন্ধের তুমুল আড্ডায়, পার্কের সবুজে, জীবনের বকুলতলায়হাসবে বিভোর স্বপ্নে কিংবা ঘুমে-জাগরণে;মানুষ অদম্য, কে তারে রোখে?

 

 

০২.

ভাগ

তাজা রক্তের উপর দিয়ে হেঁটে গেছে সভ্যতা দ্বিজাতিতত্ত্বের মিছিলেউপড়ে ফেলে গেছে শৈশব-কৈশোরের আজন্মলালিত বোধআর মগজে রেখে গেছে কালকেউটের অবিনাশী বিষযখন তখন ফণা তোলে বিভেদের হিংস্র আড়্গেপে;

খ-িত হৃদয়ে সমানত্মরাল দুই স্রোত গঙ্গা-ফোরাত রক্তধারায়নখের আঁচড়ে জন্ম নেয় একটি দেশ মৃতপ্রায়,পোস্টমর্টেম হয় সাম্প্রদায়িকতার অলীক টেবিলে-ধরিত্রী বড় অসহায়, মূর্খ সনত্মান তার দেহকে টুকরো করেপায়ে বাঁধে কাঁটাতারের বেড়ি,ওরা বাতাস প্রবাহিত হতে দেবে না হেমনত্ম কিংবা বসনেত্মওরা জলধারাকে আটকে দেবে বর্ষা কিংবা শীতেআকাশের মেঘকেও আটকে দেবে পুবে পশ্চিমে সাম্প্রদায়িক সনদেপাখিদেরও ডানা দেবে ভেঙে ভুলে কাঁটাতার পেরম্নলে;ভাষাকেও দেবে না আলিঙ্গনের অধিকার-যতদিন বিরম্নদ্ধ বিবেক ততদিন বিভেদ অনিবার্য,হৃদয় কি আপেল, টুকরো করা যায় বিভেদের ছুরিতে?   ০৩.টুটান খামুনপিরামিডের বুকের ভেতর আমিও যেন মৃত এক টুটান খামুন,নিঃসঙ্গ এক মমি প্রাণহীন শতাব্দী থেকে শতাব্দী নিদ্রামগ্নমৃত স্বপ্নের প্রান্তরে শায়িত ফারাওদের শেষ সম্রাট,কোনো প্রেম নয়, স্বপ্ন নয়, বাতাসের মিথ্যে গেরস্থালি; এখানে শরৎ আসে না, বসন্ত আসে না, শুধু দারুণ শীতআর গান গায় মরুর বাউল জিপসি প্রেতাত্মা পাঁজরের চারপাশমৃত নেফারতিতির বুকে কোনো কান্না জমে না অলস বৈকালে,কিন্তু পাঁজরের ভাঁজে ভাঁজে একা শুধু বাঁশি বাজায় মৃত টুটান খামুন;অদ্ভুত কিছু শূন্যতা অন্দরে প্রত্ন ছবি আঁকে দিন ক্ষণ কাল ভুলেকোনো কারণ ছাড়াই প্রাগৈতিহাসিক অন্ধকার ঝুলে থাকে জীবনের ডালে-   ০৪.   আমি মানুষআমি মানুষ-টের পাই, অনুভূতি পুড়ে গেলেও কষ্ট কখনও ছাই হয় নাএখনও আবেগে আপ্লুত হই মানুষেরই মতোন মানুষেরই দুঃখেভেতরটা নড়ে ওঠে দুঃসহ যন্ত্রণায় মানবতার বিপর্যয়ে; কেউ যখন ছটফট করে ক্ষিধের জ্বালায়   কিংবা অনাহারে কেঁদে ওঠে শিশুমুখে তুলে দিতে পারি না এক মুঠো খাবার, তখন আমিও কাঁদিমহান শিক্ষকের মতো তখন এক বোধ এসে আমার মাথায় হাত বুলায় অজান্তেইবুকের ভেতর মুহুর্মুহু আছড়ে পড়ে সহানুভূতির অবিনশ্বর ঢেউকোনো এক বিষাক্ত তক্ষক ছোবল মারে অন্তরাত্মার মূলে;যখন দাবানলে দাউদাউ জ্বলে ওঠে আমাজানের জঙ্গলপ্রাণভয়ে ছোটে হাতি কিংবা ক্যাঙারুর দল, পোড়ে মানবতাআমার বুকেও জ্বলে ওঠে আগুন, আমিও পুড়ে উঠি হরিণির মতোটের পাই জীবনপোড়া ঘ্রাণ, আমিও দগ্ধ মানুষ বলেই হয়তবুকে নয়, কষ্ট লাগে প্রাণে; মমতার গভীর প্রদেশে-   এই যে বৃক্ষের মূলোৎপাটন করো কিংবা ডাল ভাঙো, পাতা ছেঁড়ো অবলীলায়বৃক্ষের কষ্টও আমার বুকে তরফের মতো বাজেতখন বুঝি, আমি মানুষ বলেই হয়ত টের পাই এইসব কষ্টের ছোঁয়া;মানুষ বলেই হয়ত মানুষের কষ্ট বুঝি, মানুষের কষ্ট বাজে আমারই বুকে-আমার কোনো দেশ নেই, আমার কোনো জাত নেই, নেই কোনো কালআমার একমাত্র পরিচয়- আমি মানুষ, ভালোবাসি আমার পৃথিবী-ঘৃণা বা ভালোবাসার পরোয়া করি না, আমাকে মানুষ ভেবো-   ০৫.মুকুন্দপুরওই দূরে-একটা গ্রাম ছিল কিছুটা ঢিলেঢালা স্বভাবেরকাঁচা রাস্তা একেবেঁকে যেতে যেতে কোথায় কখন যেনঅগোছালো ধানখেতের মধ্যে হারিয়ে যায় পথ হারানো মানুষের মতো,তারপরেই রূপকথার গল্পের মতো একটা সন্ধেমাখা গ্রামমুকুন্দপুর-আমি মুকুন্দপুর যাব; গ্রামের মানুষগুলো আগের সেই গ্রামের মানুষের মতোই সাদাসিদেসকাল হতো, সন্ধে হতো, আলো না জ্বেলেই ঘুমিয়ে পড়ত সবাইওখানেই ছিল সেই ধুলোমাখা গ্রামটা, মুকুন্দপুরভাঁটফুল ফুটে থাকত নিঃসঙ্কোচে রাস্তার দু’ধারেপ্রজাপতি খেলা করত মধুর অভিমানে বাতাসের তালে;আজ আর নেই সেই গ্রাম সেইখানে-মানুষগুলো কবে যেন প্রজাপতি হয়ে উড়ে গেছে নিশ্চিন্তপুরতাদের ছায়াগুলো ঘোরেফেরে একা একা রোদমাঠেকারও দীর্ঘশ্বাসের মতো দৈবাৎ কখনও বাতাস এসে নাড়িয়ে দেয়দুর্বাঘাসের ডগায় সাদা ফুলে ঘুমিয়ে থাকা মিহিন পরাগ;আমি মুকুন্দপুর যাব-তাই ঘুমিয়ে থাকি, যদি স্বপ্নের ভেতর একদিনআবার যাওয়া হয় সেই ভালোবাসার মুকুন্দপুরে-   গ্রামটা হয়ত এখনও আছে কারও কারও বুকের ভেতর।   ০৬.করোনা বনাম ডাইনি(প্রিয় বন্ধু, সাহিত্যিক জ্যোতির্ময় সেন এর ‘মনোবল’ ছড়ার জবাবে)কী কারণে করোনাকে বলেছিস ডাইনি?কথাটার যুক্তিটা আজও খুঁজে পাই নি।ভূত বলে নেই কি রে সম্মান; তাই নি?কী করে বোঝাব তোরে কথাটা বেআইনি?তোর নামে সব ভূতে করে দেবে মামলাহয়তবা করতেও পারে তারা হামলা।তার সাথে করোনার করো নাকো তুলনাএ কথাটা কোনোকালে বিপদেও ভুলো না-ধুতুরা বা কদমের মতো হলো করোনাডাইনিকে ধরা যায়, করোনাকে ধরো না।ক্ষুদ্রাতি জীবাণু সে, চোখে দেখা পাই নি?বুদ্ধি পাকে নি তোর, টাকে নেই ছাইনি।হাত, পা ও দাঁত থাকে ডাইনির শরীরেমাথাভরা চুল থাকে; দেখা পেলে মরি রে?রাতকানা থাকে লোকে, তুই কানা দিনেওচুল নেই কলপটা তবু নিস্‌ কিনেও।ছাইতান গাছে থাকে, করে নিস্‌ যাচাইডাইনিরা দিতে পারে তার কাছে যা চাই।যদিও কখনো আমি ওই দিকে যাই নিহাত পেতে কোনোদিন কিছু আমি চাই নি।মনে কি থাকে রে বল্‌, বল্‌ থাকে শরীরেএতটুকু বোধ নেই; তোরে কী যে করি রে?ডাইনিরা অমানুষ, করোনারা জীবাণুপারবি না পালাতে রে, বুঝলি তো, ও মানু??

ইতিহাস জানার ব্যবস্থা করতেই স.....

নিজস্ব প্রতিবেদক

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, হোটেল নির্মাণ নয়, ইতিহাস জানার ব্যব.....

দ্বিতীয় ধাপে মুক্তিযোদ্ধার চ.....

নিজস্ব প্রতিবেদক : একাত্তর সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে বিভিন্ন পর্যায় থেকে অংশ নেওয়া আরও ৬ হাজার ৯৮৮ জন বীর মুক্.....

করোনার চেয়েও ভয়ংকর এএমআর মোকা.....

লাখোকণ্ঠ অনলাইন ডেস্ক : অ্যান্টিমাইক্রোবায়াল রেজিস্ট্যান্স (এএমআর) বা ওষুধের বিরুদ্ধে জীবাণুদের প্রতিরোধ .....

'মুজিব ক্লাইমেট প্রসপারিটি প্.....

নিজস্ব প্রতিবেদক : পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন বলেছেন, সিভিএফ সভাপতি এবং প্রধানমন.....

ইফতার এবং সাহরীতে পানি সরবরাহ .....

নিজস্ব প্রতিবেদক : পবিত্র রমজান মাসে ইফতার এবং সাহরীর সময় পর্যাপ্ত পানি সরবরাহের জন্য ঢাকা ওয়াসাসহ দেশের .....

আজ সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষ.....

লাখোকণ্ঠ অনলাইন

বাংলা নববর্ষ ১৪২৮ উপলক্ষে আজ (১৩ এপ্রিল) মঙ্গলবার সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দ.....

মামুনুলকে বহিষ্কারের কোন প্র.....

হাটহাজারী (চট্টগ্রাম), প্রতিনিধি

মানুষকে রমজানে শান্তিপূর্ণভাবে রোজা রাখার সুযোগ দিতে হবে। মাহে রমজানে .....

চলে গেলেন বর্ষীয়ান সাংবাদিক হ.....

স্টাফ রিপোর্টার, ঢাকা : জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক ইত্তেফাকের সাবেক নির্বাহী সম্পাদক প্রবীণ সা.....

এবার পহেলা বৈশাখ পালনে নিষেধা.....

ডেস্ক রিপোর্ট

করোনার সংক্রমণ উর্ধ্বমূখী হওয়ায় আগামী ১৪ এপ্রিল বাংলা বছরের প্রথম দিনটি জনসমাগম করে পালনে.....

ইন্দ্রমোহন রাজবংশীর মৃত্যুতে.....

নিজস্ব প্রতিবেদক : একুশে পদকপ্রাপ্ত বরেণ্য লোকশিল্পী বীর মুক্তিযোদ্ধা ইন্দ্রমোহন রাজবংশীর মৃত্যুতে গভীর শ.....

দু’দিন পর স্বচল হলো গণপরিবহন .....

স্টাফ রিপোর্টার : করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ঘোষিত লকডাউনে দু’দিন বন্ধ থাকার পর আজ আবারো শুরু হয়েছে গণপরিবহন চ.....

আরও বাড়তে পারে তাপমাত্রা .....

লাখোকণ্ঠ অনলাইন ডেস্ক :

অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে বলে জ.....