Ad: ০১৭১১৯৫২৫২২
১৮ই মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ || ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন আদালত
  3. আইন শৃংখলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. কৃষি অর্থনীতি
  6. খেলাধূলা
  7. চাকরি-বাকরি
  8. জাতীয়
  9. জীবনের গল্প
  10. ধর্ম
  11. নির্বাচনী হাওয়া
  12. ফিচার
  13. বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
  14. বিনোদন
  15. রাজধানী
আজকের সর্বশেষ সবখবর

পাবনায় মেডিকেল কলেজে মাতৃভাষা দিবসে অনুষ্ঠান চলাকালে পতাকা খুলে নিয়ে গেলেন ম্যাজিস্ট্রেট

অনলাইন ডেক্স
ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২৩ ৮:৪৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

পাবনা প্রতিনিধি : মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে পাবনা মেডিকেল কলেজে টাঙানো জাতীয় পতাকা ছেঁড়া থাকায় তা খুলে নিয়ে গেছেন এক ম্যাজিস্ট্রেট। এর প্রতিবাদে প্রশাসনিক ভবনে তালা দিয়ে কাশিপুর সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন শিক্ষার্থীরা।
মঙ্গলবার (২১ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১২টার দিকে পাবনা মেডিকেল কলেজের ভবনে তালা ঝুলিয়ে দেন শিক্ষার্থীরা। পরে কলেজের সামনের সড়ক কাশিপুর অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন।
শিক্ষার্থীরা বলেন,  মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে শহীদের সম্মানে ক্যাম্পাসে জাতীয় পতাকা টাঙানো হয়েছিল। কিন্ত সকালে একজন ম্যাজিস্ট্রেট এসে নানা অভিযোগ তুলে পতাকা খুলে ফেলেন।
ছাত্রছাত্রীরা জানান, সকল বিধি মোতাবেক পতাকা টাঙানো হলেও ম্যাজিস্ট্রেট তা খুলে নিয়ে গেছেন। এর প্রতিবাদে আমরা কলেজের ভবনে তালা দিয়েছি ও সড়ক অবরোধ করেছি। জাতীয় পতাকা ও কলেজকে যেভাবে অসম্মান করা হয়েছে তার জন্য ক্ষমা না চাইলে অবরোধ ও বিক্ষোভ অব্যাহত থাকবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।  এ বিষয়ে পাবনা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ ওবায়দুল্লাহ ইবনে আলী বলেন, একুশে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে আমাদের অনুষ্ঠান চলছিল। এ সময় একজন ম্যাজিস্ট্রেট এসে ক্যাম্পাসে টাঙানো পতাকা ছেঁড়া ও রং ঠিক নেই বলে খুলে ফেলতে বলেন। তার নির্দেশে এক কর্মচারী পতাকাটি খুলে ফেললে তিনি সেই পতাকা নিয়ে চলে যান। তিনি আমাদের তার নাম-পদবি কিছুই বলেননি, আমরা এখনো তার বিষয়ে জানতে পারিনি। জেলা প্রশাসককে ফোন দিলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। পরবর্তীতে শিক্ষার্থীরা আমাদের কলেজের ভবনে তালা ঝুলিয়ে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছে। এ বিষয়ে পাবনা সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, শুনেছি পতাকা খুলে নিয়ে আসছেন ম্যাজিস্ট্রেট। এ নিয়ে শিক্ষার্থীরা অযৌক্তিক ভাবে আন্দোলন করছেন। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। আমরা শিক্ষার্থীদের বলেছি- তাদের অবরোধ প্রত্যাহার করতে। অভিযুক্ত সেই ম্যাজিস্ট্রেটের নাম প্রকাশ করতে অপরাগত প্রকাশ করে পাবনার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. জাহাঙ্গীর আলম জানান, আমি ঘটনাস্থলেই আছি। তাদের সঙ্গে বসে আমরা সমস্যার সমাধান করে নিয়েছি। সমান্য একটু ভুল বোঝাবুঝি ছিল ঠিক হয়ে গেছে। ঘটনাস্থলে পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুদ আলম ও জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের এক কর্মকর্তা গিয়ে বিশাল সমাধানে আনেন। এবং পরে নতুন পতাকা টানানো হয়েছে।



এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।