Ad: ০১৭১১৯৫২৫২২
১৮ই মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ || ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন আদালত
  3. আইন শৃংখলা
  4. আন্তর্জাতিক
  5. কৃষি অর্থনীতি
  6. খেলাধূলা
  7. চাকরি-বাকরি
  8. জাতীয়
  9. জীবনের গল্প
  10. ধর্ম
  11. নির্বাচনী হাওয়া
  12. ফিচার
  13. বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
  14. বিনোদন
  15. রাজধানী
আজকের সর্বশেষ সবখবর

দুর্গাপুরে দুর্বৃত্তের  আগুনে পানচাষী মনসুরের স্বপ্ন পুড়ে ছাঁই

নিউজ রুম
মার্চ ৮, ২০২৪ ৬:৩৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

দুর্গাপুর, (রাজশাহী) প্রতিনিধিঃ রাজশাহীর দুর্গাপুরে পানবরজে দূর্বৃত্তের আগুনে পুড়ে ছাঁই হয়ে গেছে হতদরিদ্র পানচাষী পরিবারের স্বপ্ন।  ৭মার্চ বৃহস্পতিবার রাতে দুর্গাপুর উপজেলার কুশাডাঙ্গা গ্রামে এই অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। অগ্নিকান্ডে প্রায় ৭লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান এলাকার পানচাষীরা।
কুশাডাঙ্গা গ্রামের বাসিন্দা ও বখতিয়ারপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. সোহেল রানা বলেন, দুর্বৃত্তদের লাগানো আগুনে পুড়ে ছাঁই হয়ে গেলো দুর্গাপুর উপজেলার কুশাডাঙ্গা গ্রামের হতদরিদ্র পানচাষী মনসুর রহমানের স্বপ্ন।
বৃহস্পতিবার আনুমানিক রাত সাড়ে আটটার দিকে প্রতিবেশী আবুল ও আব্দুল হামিদ প্রথমে আগুন দেখতে পেয়ে চিৎকার করতে থাকলে আশেপাশের লোকজন বের হয়ে দেখে বিলের মধ্যে আগুন দাউদাউ করে জ্বলছে। গ্রামবাসীরা ছুঁটে গিয়ে পানবরজ আগুনে পুড়তে দেখে তড়িঘড়ি করে যে যারমতো ইলেট্রিক ও জল মটর এবং মেশিন দিয়ে আগুন নেভাতে থাকে। প্রায় পৌনে একঘন্টা ব্যাপী চেষ্টা করে গ্রামবাসী আগুন নেভাতে সক্ষম হয়।
এরই মধ্যে কুশাডাঙ্গা গ্রামের হতদরিদ্র দিনমজুর পানচাষী মনসুর রহমানের ১০ পুন লগরের পান বরজ পুড়ে ছাঁই হয়ে যায়। হতদরিদ্র দিনমজুর পানচাষী মনসুর রহমান বলেন, শত্রুতা করে কে আমার এতো বড় ক্ষতি করলো, আমি একেবারে নিঃস্ব হয়ে গেলাম, এভাবেই আমার স্বপ্ন পুড়ে ছাঁই হয়ে গেলো।
দিনমজুরি করে খেয়ে না খেয়ে কিছু টাকা জমা করে আর কিছু অর্থ ধারদেনা ও এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে পানের বরজটা করেছিলাম। দুইটি বছর ধরে পান বরজের পেছনে আমি আমার স্ত্রী ও দুই সন্তান সকলে মিলে পরিশ্রম করে ঋণ শোধ করেছি।
স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে পান বরজটিতে আর দুইটি বছর পরিশ্রম করে মাথা গোঁজার ঠাঁইয়ের জন্য একটি ছোট একটি বাড়ী করার স্বপ্ন দেখেছিলাম, কিন্তু কে বা কাহারা আমার স্বপ্ন দেখা ফসল পান বরজে আগুন দিয়ে আমাকে নিঃস্ব করে পথে বসালো। আগুনে পানবরজের প্রায় ৫লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান কুশাডাঙ্গা গ্রামের পানচাষীরা।
শুক্রবার সকালে ঘটনাস্থল কুশাডাঙ্গা গ্রামে পুড়ে যাওয়া পানবরজ পরিদর্শন করে সরকারের কাছে কিছু অর্থ সহযোগীতার জন্য আবেদন করার জন্য ক্ষতিগ্রস্থ দিনমজুর মনসুরকে পরামর্শ দেন ইউপি সদস্য তামেজ উদ্দীন।
এবিষয়ে দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি খায়রুল ইসলাম বলেন, পানবরজে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা শুনেছি, তবে এখনও কেউ জিডি বা অভিযোগ করতে আসেনি, অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।



এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।